'ফ্রন্টিয়ার প্রযুক্তি তরুণদের ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে এগিয়ে রাখবে'

তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব এন এম জিয়াউল আলম। ছবি : সৌজন্যে
Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ফ্রন্টিয়ার প্রযুক্তিগুলো দেশের তরুণদের ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে আরও এগিয়ে নেবে বলে জানিয়েছেন তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের সচিব এন এম জিয়াউল আলম।

বৃহস্পতিবার অনলাইনে ‘আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স’ বা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা বিষয়ক একটি দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এমন কথা বলেন।

তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের আওতায় ‘উদ্ভাবন ও উদ্যোক্তা উন্নয়ন একাডেমি প্রতিষ্ঠাকরণ প্রকল্প বা আইডিয়া’ আয়োজন করে প্রশিক্ষণ কর্মশালাটির। ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে আইডিয়া প্রকল্পের ‘এডুকেশন ফর ন্যাশন’ এর আওতায় সকাল ১০টায় উদ্বোধন অনুষ্ঠান শেষে প্রশিক্ষণটি শুরু হয়।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম।

তিনি বলেন যে, আমরা ইতোমধ্যে ফ্রন্টিয়ার টেকনোলজি বাংলাদেশে ব্যবহার শুরু করতে পেরেছি। ডিজিটাল বাংলাদেশের অগ্রযাত্রাকে আরো বেশি ত্বরান্বিত করছে এই প্রযুক্তি।

তিনি আরো বলেন, কোভিড-১৯ আমাদের আটকে রাখতে পারেনি। করোনা পরিস্থিতিতে প্রশিক্ষণার্থীরা এখন অনলাইন প্রশিক্ষণে অভ্যস্ত হচ্ছে। আমরা যতবেশি দৈনন্দিন কার্যক্রমে তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহার করতে পারব ততবেশি সার্বিক উন্নয়নে দেশ এগিয়ে যাবে। তথ্য-প্রযুক্তি আমাদের মৌলিক চাহিদায় পরিণত হচ্ছে।

বিশেষ অতিথি ছিলেন বিসিসি’র নির্বাহী পরিচালক পার্থপ্রতিম দেব। কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার গুরুত্ব সম্পর্কে ব্যাখ্যা দিয়ে বলেন যে, ৪র্থ শিল্প বিপ্লবের এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ অনুসঙ্গ। এই প্রশিক্ষণটি প্রশিক্ষণার্থীদের ফ্রন্টিয়ার টেকনোলজি সম্পর্কে আরো উৎসাহিত করবে।

অনলাইন অনুষ্ঠানটি সভাপতিত্ব করেন আইডিয়া প্রকল্পের পরিচালকসৈয়দ মজিবুল হক।

তিনি স্বাগত বক্তব্যে জানান, ফ্রন্টিয়ার টেকনোলজি প্রায় সকল ক্ষেত্রেই প্রয়োজন আছে। কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার ওপর বাংলাদেশের তরুণদের যথেষ্ট আগ্রহ রয়েছে। আইডিয়া প্রকল্প থেকে আগামীতেও ফ্রন্টিয়ার টেকনোলজি সম্পর্কে আরো প্রশিক্ষণ কার্যক্রম আয়োজন করা হবে।

এই প্রশিক্ষণটিতে রিসোর্স পারসন হিসেবে সংযুক্ত হন জাপানের ওসাকা ইউনিভার্সিটি’র সহযোগী অধ্যাপক ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) বিভাগের প্রফেসর ড. মো. আতিকুর রহমান আহাদ, বুয়েটের কম্পিউটার সায়েন্স অ্রান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং (সিএসই) বিভাগের অধ্যাপক ড. এম সোহেল রহমান এবং ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং (সিএসই) বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ নুরুল হুদা।

দিনব্যাপী এই আয়োজনে আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স ও মেশিন লার্নিং, কোভিড-১৯ এর ওপরে এআই বেইজড্ রিসার্স এবং কম্পিউটার ভিশন ও আইওটি সেন্সর বেইজড্ অ্যাক্টিভিটি রিকগনিশন (হেল্থ কেয়ার এবং অন্যান্য অ্যাপ্লিকেশন) সম্পর্কে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়।

ইএইচ/জুন১৮/২০২০/১৫০০

*

*

আরও পড়ুন