অ্যাক্ট কোভিড-১৯ হ্যাকাথনে বিজয়ী ছয় প্রকল্প

তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। ছবি : ইন্টারনেট
Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : করোনাভাইরাস সংকট মোকাবেলায় দেশের তরুণদের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত হয়েছে অ্যাক্ট কোভিড-১৯ অনলাইন হ্যাকাথান। সেখানে ছয় ক্যাটেগরিতে ছয় প্রকল্প বিজয়ী হয়েছে। 

প্রকল্পগুলো হলো- স্যোসিও ইকোনোমিক্যালি ডিজঅ্যাডভান্টেজ পিপল ক্যাটেগরিতে বিজয়ী আই সোশ্যাল এর ‘সুযোগ-এ ভার্চুয়াল অপারেশনাল নেটওয়ার্ক টু সাপোর্ট দ্যা বিওপি পপুলেশন’ নামের প্রকল্প। এর টিম লিডার ছিলেন অনুপমা ইসলাম নিশো। প্রথম রানার্স আপ হয় চালান.এক্সওয়াইজেড এর ‘মানুষ.এআই’ প্রকল্প। 

বিজনেস অপারেশন অ্যান্ড প্রোডাকশন ক্যাটেগরিতে বিজয়ী ল্যান্ডনক লি. এর ‘ল্যান্ডনক: লাস্ট মাইল গ্রোসারি ম্যানেজমেন্ট অ্যাপ ফর দ্যা পিপল হু ক্যান্ট ইনভেস্ট লার্জলি অন টেক।’ প্রকল্পটির টিম লিডার ছিলেন মাহির আমিরুর রহমান ইরাম। প্রথম রানার্স আপ হয় লন্ডন স্কুল অব কমার্সের আদনান খানের ‘নিউ থ্রেড’ নামের একটি প্রকল্প।

হেলথ কেয়ার ইকুয়পমেন্ট অ্যান্ড ট্রিটমেন্ট ক্যাটেগরিতে বিজয়ী হয়েছে থিংক ব্রিকস এর ‘পাওয়ারড এয়ার পিউরিফায়িং রেস্পিরেটর (পিএপিআর)।’ প্রথম রানার্স আপ হয় বুয়েটের আসিফ শাহরিয়ার সুস্মিত এর ‘র‍্যাডঅ্যাসিস্ট : দ্যা ফাস্ট এআই বেইজড টেলিরেডিওলজি সলিউশন ডেভলপড ইন বাংলাদেশ’ নামের প্রকল্প।

অ্যাক্সেস টু ইনফরমেশন ক্যাটেগরিতে বিজয়ী ইনোভেস টেকনোলজিসের ‘নিরাপদ : স্টে হোম, স্টে সেফ, হেল্প বাংলাদেশ পুলিশ অর এনি কনসার্নড অথরিটি টু মনিটর অল দ্যা পিপল হু আর ইন হোম কেয়ারাইনটাইন’ নামের প্রকল্প। প্রথম রানার্স আপ টগুমগু প্রাইভেট লি. এর ‘ওয়ান স্টপ প্যারেন্টিং অ্যাপ বাই টগুমগু’।

মেন্টাল হেলথ ক্যাটেগরিতে বিজয়ী ‘মনের বন্ধু’। প্রকল্পটির টিম লিডার ছিলেন তওহীদা শিরোপা। প্রথম রানার্স আপ হন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সুমাইয়া আজমি। তার প্রকল্পের নাম ‘নির্ভানা : মেন্টাল হেলথ অ্যান্ড ওয়েল বিয়িং সাপোর্টস’। 

আদারস ক্যাটেগরিতে বিজয়ী এএনটিটি রোবোটিক্স লি. এর ‘লং ডিসটেন্স ডিজইনফেকশান প্রসিডিউর/সার্ভিস ফর লকড ডাউন এরিয়াস’ নামের একটি প্রকল্প। প্রকল্পটির টিম লিডার ছিলেন সৈয়দ গোলাম ইয়ামুর আবদুল্লাহ। প্রথম রানার্স আপ হয় ওয়াটসিটিজ এর ‘আলট্রাভায়োলেট জার্মিসাইডাল ইরাডিয়েশান বেইজড ডিজইনফেকশন বক্স’ নামের প্রকল্প। 

তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের উদ্যোগে এবং কল ফর নেশন প্লাটফর্মের আওতায় অনুষ্ঠিত হ্যাকাথনে মোট ৬৮১টি প্রকল্প থেকে ন্যাশনাল জুরিদের সাহায্যে যাচাই বাছাই শেষে, প্রথম সিজনে গ্রান্ড ফিনাল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ছয় ক্যাটাগরিতে ২টি করে রানার্সআপ পুরস্কার, দুটি বিশেষ ক্যাটাগরিতে দুটিটি পুরস্কার ও ১৬টি অনারেবল মেনশনসহ সর্বমোট ৩৬টি পুরস্কার দেওয়া হয়েছে।  

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এবং সভাপতিত্ব করেন বিভাগটির জ্যেষ্ঠ সচিব  এন এম জিয়াউল আলম।

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, এই সকল সলিউশনগুলোর সুবিধা যাতে দেশের মানুষ গ্রহণ করতে পারেন, সে কারণে এই গুলোকে স্টার্টআপে পরিণত করা হবে। এজন্য স্টার্টআপ ফান্ড ও মেন্টরিংসহ সরকারের পক্ষ থেকে সকল ধরনের সহযোগিতা করা হবে।

ইএইচ/জুন০৯/২০২০/১২৪৭

*

*

আরও পড়ুন