ক্রোম ব্যবহারকারীদের কেউ কেউ পেতে পারেন চার লাখ টাকা!

ছবি: রয়টার্স থেকে নেওয়া
Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর: গুগল ক্রোম ব্যবহারকারীদের মধ্যে যারা নিয়মিত ইনকগনিটো ফিচারটি নিয়মিত ব্যবহার করেন, তারা পাঁচ হাজার ডলার বা চার লাখ টাকা পর্যন্ত পাওয়ার একটা সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে।
ইনকগনিটো ফিচারটি হচ্ছে আপনি যখন গোপনীয়তা সহ ব্রাউজ করতে চান। অর্থাৎ, যখন কেউ চায় না তিনি ওয়েবসাইটে ঢুকছেন, কী সার্চ করছেন, সেগুলোর কোনও তথ্য ব্রাউজার বা ডিভাইস রাখুক তখন ইনকগনিটো মুড ব্যবহার করে থাকেন। এই ধরনের ব্যবস্থা সব ব্রাউজারেই থেকে থাকে। সাফারি, ফায়ারফক্সেও আছে।
অভিযোগ উঠেছে এই মুড ব্যবহার করার পরেও গুগল নিজেই ব্রাউজার থেকে তথ্য সংগ্রহ করে। আর এই অভিযোগে ক্যালিফোর্নিয়ার একটি আদালতে গুগলের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। মামলায় পাঁচ বিলিয়ন ডলার ক্ষতিপূরণ চাওয়া হয়েছে।
আর এই মামলায় গুগল যদি পাঁচ বিলিয়ন ডলার দিতে বাধ্য হয় তাহলে এই টাকার ভাগ সব ভুক্তভোগী পাবেন। একেকজন পাঁচ হাজার ডলার পর্যন্ত পেতে পারেন।
অভিযোগে বলা হয়েছে যে, গুগল ইতিমধ্যে মানুষের সব ধরনের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য সংগ্রহ করেছে। একজন ব্যবহারকারীর শপিং অভ্যাস থেকে শুরু করে ব্যক্তিগত তথ্য সবকিছুই রাখে এমনকি বিব্রতকর সার্চের তথ্যও গোপনে রেখে দেয়।
এদিকে, গুগলের মুখপাত্র হোসে কাস্তানেদা বলেন, প্রতিবার ইনকগনিটো মুডে ঢুকার সঙ্গে সঙ্গে জানিয়ে দেওয়া হয় যে এই সেশনের কোনও ইতিহাস ব্রাউজার বা ডিভাইসে সংরক্ষিত থাকবে না। সঙ্গে এটাও বলে দেওয়া হয় যে ওয়েবসাইটগুলো ব্রাউজিং ইতিহাস সেইভ করতে পারে।
প্রশ্ন উঠেছে যদি ব্যবহারকারী চাইবেনই যে কেউ তার তথ্য সংগ্রহ করে রাখুক তাহলে কেনই বা তিনি ইনকগনিটো ব্যবহার করবেন? তিনি যদি ব্রাউজিং ইতিহাস মুছে দিতে চান তাহলে তো তিনি সেশন শেষে অন্যভাবেও তা করতে পারেন। এই মুড তাহলে কী মূল্য সংযোজন করছে?
ইন্টারনেট অবলম্বনে, এমআর/জুন ৬/২০২০/ ১২২০

আরও পড়ুন –

কর্মীদের সবাইকে এক হাজার ডলার করে দিচ্ছে গুগল, কেন?

গুগল সার্চের হাইলাইটেড অংশ হলুদ রঙে দেখাবে গুগল

চাইনিজ অ্যাপ ডিলিটের হিড়িক ভারতে : গুগলের বাধা

বদলানো যাবে জিমেইল ইনবক্সের রূপ

টিকটকের রেটিং কমায় রিভিউ ডিলিট গুগলের

*

*

আরও পড়ুন