টিকটক নিয়ন্ত্রণ চায় ভারতের ওড়িশা আদালত

Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ছোট ভিডিও তৈরির অ্যাপ টিকটক নিয়ে এর আগেও ওড়িশার আদালত উদ্বেগ প্রকাশ করেছিল। এবার অ্যাপটিকে নিয়ন্ত্রণের কথা বলেছে রাজ্যটির আদালত।

বৃহস্পতিবার এক শুনানি শেষে বলেছে, টিকটক অ্যাপ দেশের সংস্কৃতিকে বিনষ্ট করছে এবং একই সঙ্গে ব্যবহারকারীদের পর্নোগ্রাফিতে উষ্কে দিচ্ছে।

আদালতের বিচারপতি এসকে পানিগ্রাহী তার পর্যবেক্ষণ তুলে ধরে বলেছেন, টিকটক অ্যাপ শুধু সংস্কৃতি ও যৌনতাকেই উষ্কে দিচ্ছে না, এর পাশাপাশি এতে শিশুদের যৌনতায় আকৃষ্ট করছে, অপ্রীতিকর, বিরক্তিকর কনটেন্ট প্রকাশ করে মানুষকে নেতিবাচক দিকে ধাবিত করাচ্ছে। এ থেকে কিশোরদের রক্ষা করতে হবে।

রাজ্যের সম্বলপুর জেলার এক আত্মহত্যা মামলায় জড়িত একজনের জামিন শুনানির সময় আদালত টিকটক অ্যাপ নিয়ে এমন পর্যবেক্ষণ  তুলে ধরে।

আদালত বলেছে, এমন সব অ্যাপ্লিকেশনের উপন উপযুক্ত নিয়ন্ত্রণ আরোপ করার প্রয়োজন হয়ে পড়েছে। অন্যথায় এটি জাতীয়ভাবে সরকারকে সামাজিক দায়বদ্ধতার জায়গায় প্রশ্ন ছুঁড়ে দেয়।

ওই আত্মহত্যার ঘটনাটি ঘটে সম্বলপুরে, যেখানে এক নারীকে দুজন অভিযুক্ত নানাভাবে অ্যাপটির মাধ্যমে হয়রানি করে আসছিল। একই সঙ্গে ওই নারীকে ভয়ভীতিও দেখানো হয়। যা তিনি সহ্য করতে না পেরে বাসায় সিলিং ফ্যানের সঙ্গে গলায় ফাঁস নেন।

এর আগেও ভারতে একই কারণ দেখিয়ে কয়েকটি রাজ্যের আদালত সুপ্রিম কোর্টে অ্যাপটি বন্ধ করার ব্যাপারে মতামত চেয়েছিল। সাময়িক সেটি বন্ধ থাকার পর আবারও অ্যাপটি সবার জন্য উন্মুক্ত করা হয় দেশটিতে।

বর্তমানে করোনাভাইরাস লকডাউনে বিশ্বব্যাপী অ্যাপটির ব্যবহারকারী বেড়ে ২০০ কোটির বেশি হয়েছে। যার মধ্যে সবচেয়ে বেশি ব্যবহারকারী ভারতে।

ইন্টারনেট অবলম্বনে ইএইচ/মে৩০/ ২০২০/ ১৪১৫

আরও পড়ুন –

টিকটক ছাড়তে বলায় আত্মহত্যা

চীন থেকে সরে যাচ্ছে বাইটড্যান্স-টিকটক!

টিকটকে বিশ্বাস নেই যুক্তরাষ্ট্রের!

আবারও আইনি জটিলতায় টিকটক

*

*

আরও পড়ুন