Techno Header Top and Before feature image

ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তি ফোনের উপর কী প্রভাব ফেলে?

ব্যাটারি ক্ষয়। ছবি : ইন্টারনেট
Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ফোনের চার্জ অল্পতেই শেষ হওয়ার দিন এখন ফুরিয়েছে। ফোনের ব্যাটারির শক্তি যেমন বাড়ছে তেমনি কমছে চার্জে দেওয়ার সময় সীমা।

আগে ফোন চার্জ করতে ৪ থেকে ৬ ঘণ্টা সময় লাগতো। এখন ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তির কল্যাণে সময়টা নেমে এসেছে এক ঘণ্টায়।

প্রতিটি ফ্ল্যাগশিপ ফোনেই এখন ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তি দেখা যায়। তবে এই প্রযুক্তি ফোনের উপর অতিরিক্তি চাপ সৃষ্টি করে এর আয়ু কমিয়ে দেয় কিনা তা নিয়ে অনেকেই দ্বিধায় ভোগেন।

এই প্রশ্নের উত্তর খুঁজেছে প্রযুক্তি বিষয়ক সংবাদ মাধ্যম সিনেট। বিষয়টি নিয়ে ব্যাটারি গবেষক ও প্রকৌশলীরা কী বলেছেন তা বিস্তারিত তুলে ধরা হলো।

ক্ষতি হয় কিনা?

প্রচলিত ব্যাটারির চেয়ে ফাস্ট চার্জিং ব্যাটারির শক্তি ৮ গুণ বেশি হয়ে থাকে। তবে এর ব্যবহারে ফোনের ব্যাটারিতে দীর্ঘ মেয়াদি কোনো প্রভাব পড়ে না। কারণ ১৮ বা ২৫ ওয়াটের ফাস্ট চার্জিং ব্যাটারিগুলো কাজ করে দুই ধাপে। প্রথম ধাপে ১০ থেকে ৩০ মিনিটের মধ্যেই ফোনের চার্জ অর্ধেক বেড়ে যায়। শুরুতে একবারেই বেশি পরিমাণে চার্জ নিয়ে নেয় ব্যাটারি। যেমন ৪৫ ওয়াটের একটি চার্জার আধা ঘণ্টাতেই ৭০ শতাংশ চার্জ করে ফেলে।

দ্বিতীয় ধাপে চার্জিং স্পিড কমে আসে। ফলে বাকি ২০ বা ৩০ শতাংশ চার্জ হতেও আধা ঘণ্টা সময়ই লাগে। ফোনের উপর নেতিবাচক প্রভাব যাতে না পরে তা নিশ্চিতেই চার্জিং প্রক্রিয়ার গতি কম রাখা হয়।

রক্ষা করবে ব্যাটারি ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম

প্রচলিত ফোনগুলোর ব্যাটারি ১০০ শতাংশ চার্জ হয়ে গেলে গরম হতে শুরু করে। বেশি গরম হয়ে গেলে ব্যাটারি বিস্ফোরণেরও ঘটনা ঘটে। ব্যাটারি তার ধারণ ক্ষমতার বেশি চার্জ নিতে পারে না বলেই এ সমস্যা হয়। তবে এখনকার অনেক ফোনেই ব্যাটারি ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম ফিচার রয়েছে। ফোনের ব্যাটারি সম্পূর্ণ চার্জ হলে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ করে দেয় ফিচারটি। এ কারণে কারিগরি ত্রুটি বাদে আধুনিক কোনো ফোন ১০০ শতাংশের বেশি চার্জ নেয় না।

আয়ু  বাড়ানোর টিপস

ফোনের চার্জ শূন্যে চলে যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করা যাবে না। ৩০ শতাংশের নিচে নামলে চার্জ দিতে হবে। এছাড়াও, আয়ু বাড়াতে সূর্যের আলো ও চুলার তাপ থেকে ফোন দূরে রাখতে হবে। গরমের দিনে ব্যাগের মধ্যে ফোন রাখলেও তা গরম হয়ে যায়। এক্ষেত্রে, ব্যাগের একই জায়গায় পানির বোতল ও ফোন রাখা যেতে পারে। এতে ফোন গরম হবে না।

ইন্টারনেট অবলম্বনে এজেড/ মে ২৪/২০২০/১১৪১

*

*

আরও পড়ুন