পুরানো ফোন কেনার আগে যে বিষয়ে জানতে হবে

পুরানো ওএসে ফোন চালানো নিরাপদ নয়। ছবি : ইন্টারনেট
Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : আইফোন ১১ প্রো বা স্যামসাংয়ের গ্যালাক্সি এস২০ সিরিজের ফোনগুলোর দাম প্রায় হাজার ডলারের বেশি।

তাই খরচের কথা ভেবে অনেকেই রিফারবিশড বা সেকেন্ড হ্যান্ড ফোন কিনতে আগ্রহী থাকেন। তবে পুরানো ফোন ব্যবহারের বেশ কিছু ঝুঁকি রয়েছে। তাই পুরানো ফোন কেনার আগে যে বিষয়গুলো সম্পর্কে সতর্ক থাকা দরকার সেগুলোই তুলে ধরা হলো।

সিকিউরিটি প্যাচস

সফটওয়্যারের নিরাপত্তায় কোনো ত্রুটি ধরা পরলে সেটা ঠিক করতে ফোন নির্মাতা কোম্পানি আপডেট পাঠায় যাতে হ্যাকাররা কোনো সুবিধা নিতে না পারে। এটাকে বলা হয় সিকিউরিটি প্যাচ।

৩ বছরের বেশি পুরানো ফোনগুলোতে সিকিউরিটি প্যাচের আপডেট পাওয়া যায় না। তাই পুরানো ফোন কেনার আগে সিকিউরিটি প্যাচের আপডেট পাওয়া যাবে কিনা সে সম্পর্কে নিশ্চিত হতে হবে।

স্যামসাং, সনি ও গুগল সাধারণত কয়েক বছরের জন্য আপডেট পাঠায়। নতুন হ্যান্ডসেট বাজারে আসা মাত্র ঝুঁকি নিরূপন বা প্যাচিংয়ের প্রয়োজন হয়। প্রতিটি মডেলের জন্য নিরাপত্তা ত্রুটি বের করে সেগুলোর আপডেট পাঠাতে বছর খানেক বা তার বেশি সময় লাগে।

ফলে দুই বা তিন বছরের পুরানো ফোনগুলোতে সিকিউরিটি আপডেট পাঠানো বন্ধ করে দেয় গুগল। ফলে ফোনে কোনো সমস্যা দেখা দিলে সেগুলোর জন্য আর আপডেট পাওয়া যায় না।

কতোটা নিরাপদ?

সিকিউরিটি ইন্টেলিজেন্স কোম্পানি লুকআউটের ডিরেক্টর ক্রিসটফ হেবেইসন জানিয়েছেন, সিকিউরিটির প্যাচের আপডেট না পাওয়া ডিভাইসগুলোকে আমরা নিরাপদ বলে মনে করি না।

নিরাপত্তা ব্যবস্থা দুর্বল থাকলে ফোন থেকে ব্যক্তিগত তথ্য, ব্যাংকিং তথ্য ও অডিও কলের রেকর্ড হ্যাকাররা চুরি করতে পারে।

সিকিউরিটি কোম্পানি সফোসের প্রিন্সিপাল রিসার্চার পল ডাকলিনের মতে, হ্যাকাররা ফোনের নিরাপত্তা ত্রুটি খুঁজে পেলে ম্যালওয়্যারও প্রবেশ করাতে পারে। এমন কিছু ঘটলে এ থেকে পরিত্রাণের কোনো উপায় নেই।

কবে কখন ফোনের সিকিউরিটি আপডেট পাঠানো বন্ধ করা হবে তা ফোন কোম্পানিগুলো আগেভাগে জানায় না। বিষয়টি নিজেকেই জেনে নিতে হয়। এক্ষেত্রে সহজ পদ্ধতি হলো সেটিংসে গিয়ে আপডেটের দিন তারিখ চেক করা। যদি সর্বশেষ আপডেট কয়েক মাস বা বছর খানেক আগে পাঠানো হয় তবে বুঝে নিতে হবে ফোন কোম্পানি সিকিউরিটি প্যাচের আপডেট পাঠানো বন্ধ করে দিয়েছে।

আপাতত শুধু অ্যান্ড্রয়েডের ৮.০, ৮.১, ৯.০ ও ১০ সংস্করণ চালিত ফোনে আপডেট পাওয়া যাচ্ছে। অপর দিকে, অ্যাপল ডিভাইসে ৫ বছর পর্যন্ত আপডেট পাঠানো হয়। ফোনের সংখ্যা কম হওয়ায় তারা দীর্ঘদিন আপডেট পাঠাতে পারে।

পুরানো ফোন হ্যাক হলেও তা শনাক্ত করা মুশকিল। ডাউনলোড করা হয়নি এমন অ্যাপ চোখে পরছে বুঝতে হবে ম্যালওয়্যার হামলা হয়েছে। মোবাইল ডেটার বেশি খরচ হওয়াও একটা লক্ষণ। তবে হার্ডওয়্যার পুরানো হয়ে গেলেও এ সমস্যা দেখা দিতে পারে।

সমাধান

নতুন ফোন কিনে যারা টাকা খরচ করতে চান না তাদের জন্য কয়েকটি পরামর্শ দিয়েছেন হেবেইসন। তিনি বলেন, ফোন নেওয়ার আগেই জানতে হবে এতে সর্বশেষ সফটওয়্যার আপডেট আছে কিনা। কেনার পর শুধু গুগল প্লে স্টোর বা অ্যাপ স্টোর থেকেই অ্যাপ ডাউনলোড করতে হবে। ওয়েবসাইট থেকে এপিকে ফাইলও ডাউনলোড করা যাবে না। এতে অনেক সময় ক্ষতিকর সফটওয়্যার থাকে। এ বিষয়গুলো মেনে চললে পুরানো ফোন ব্যবহারে কোনো ঝুঁকি থাকবে না।

ইন্টারনেট অবলম্বনে এজেড/ মে ১৪/২০২০/১৫

*

*

আরও পড়ুন