করোনাকালে এক তথ্যপ্রযুক্তি উদ্যোক্তার মানবিকতার গল্প

ফিফোটেকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তৌহিদ হোসেন। ছবি : টেকশহর
Evaly in News page (Banner-2)

আল-আমীন দেওয়ান, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : করোনায় ওলটপালট সময়ের বিপরীতে সবাই যখন আতংকে, জীবন ও জীবিকার ঝুঁকিতে দিশেহারা তখন দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের একজন হেঁটেছেন ভিন্ন পথে।

সবাই যখন বন্ধ করেছেন, তখন পুরো অফিসকেই বানিয়ে নিয়েছেন অফিস কাম বাসস্থান। কর্মীদের নিয়ে নিজেই থাকা শুরু করলেন অফিসে। কীভাবে চলছিল তাদের থাকা খাওয়া ও কাজ ? সুরক্ষাই বা নিশ্চিত করেছিলেন কীভাবে?

প্রাণঘাতী ভাইরাস থেকে সুরক্ষায় নিজেদের অফিস বন্দী করে থেমে থাকেননি, অন্যদের সহায়তাতেও লেগে গেছেন। দেখা গেলো তিনি রাতের বেলায় নেমেছেন মানুষের দুয়ারে দুয়ারে খাবার ও উপহার পৌঁছে দিতে।

এখানেই শেষ নয়, একদিকে যেমন চালাচ্ছিলেন নিয়মিত অফিসের কার্যক্রম, অন্যদিকে করোনায় মারা যাওয়া মানুষের লাশ দাফন বা সৎকারের মতো কাজেও হাত লাগিয়েছন। এই মহাবিপদে চারিদিকে বাড়িয়ে দিয়েছেন ভরসার হাত।

যার এতসব মানবিক কাজ নিয়ে এই ভূমিকা তিনি তৌহিদ হোসেন। তথ্যপ্রযুক্তি খাতের এই উদ্যোক্তার প্রতিষ্ঠানের নাম ফিফোটেক। তিনি সংগঠকও, বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব কল সেন্টার অ্যান্ড আউটসোর্সিং বা বাক্যের সাধারণ সম্পাদক।

চলুন দেখে আসি করোনাকে চ্যালেঞ্জ দেয়া সাহসী এই মানুষটি কী করেছেন :

এএডি/আরএআর/২০২০/মে১০/১২৪৩

*

*

আরও পড়ুন