১০ প্রান্তিকে সর্বোচ্চ আয় বাংলালিংকের

banglalink-techshohor
Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : করোনাকালে একটি ভালো সংবাদ পেয়েছে বাংলালিংক। ২০১৭ সালের দ্বিতীয় প্রান্তিকের পর এ প্রান্তিকে সর্বোচ্চ আয়ের অবস্থানে পৌছেছে অপারেটরটি।

চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে মার্চ প্রান্তিকে গ্রাহক বিচারে তৃতীয় অপারেটরটি আয় করেছে এক হাজার ১৬০ কোটি টাকা। গত বছরের একই সময়ের তুলনায় যা প্রায় পৌনে ৪ শতাংশ বেশি।

বাংলালিংকের মূল কোম্পানি ভিয়নের ওয়েবসাইটে বৃহস্পতিবার এ আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। এতে বলা হয়েছে, মূলত থ্রিজি ও ফোরজি প্রসারের কারণে তাদের ডেটার আয় বেড়েছে যার ইতিবাচক প্রভাব পড়েছে মোট আয়ে।

ভিয়ন জানিয়েছে, আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় চলতি বছরের প্রথম প্রান্তিকে বাংলালিংকের আয় সাড়ে ১৮ শতাংশ বেড়ে ২৬৬ কোটি টাকা হয়েছে।

একই সঙ্গে তাদের নেটওয়ার্কে আগের চেয়ে বেশি স্মার্টফোন রয়েছে, যে কারণে ডেটার ব্যবহারও অনেক বেড়েছে। গত বছরের একই সময়ের তুলনায় বৃদ্ধির এ হার প্রায় ৪৩ শতাংশ।

বাংলালিংকের প্রতিটি ইন্টারনেট গ্রাহক এখন মাসে এক হাজার ৭১৩ এমবি করে ডেটা ব্যবহার করছেন। এক বছর আগেও যা ছিল মাত্র এক হাজার ২০০ এমবি।

তাছাড়া মোট আয় বৃদ্ধি পাওয়ায় গ্রাহক প্রাতি মাসিক আয়ও এক টাকা বৃদ্ধি পেয়ে ১১৩ টাকা হয়েছে। এ সময়ে বাংলালিংকের কার্যকর গ্রাহকও বেশ খানিকটা বেড়ে মার্চের শেষে তিন কোটি ৩৬ লাখে দাঁড়িয়েছে।

ভিয়নের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বাংলাদেশে করোনা পরিস্থিতি খারাপ হওয়ার সরকার ২৬ মার্চ থেকে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেছে। এ সময়ে যেহেতু সব কিছু বন্ধ বা সীমিত হয়ে গেছে সেটি ডিজিটাল সেবা প্রসারের জন্য সুযোগ হিসেবে নিয়েছে বাংলালিংক।

এর মধ্যে তারা ই-লার্নিংসহ বেশ কিছু ডিজিটাল সেবা নিজেদের প্ল্যাটফর্মে এনেছে, যা মানুষের অনেক কাজে লাগছে বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ রয়েছে।

জেডএ/আরআর/১০ মে/২০২০/১৪.৩২

আরও পড়ুন –

বাসা থেকে কাজ করবেন জিপি বাংলালিংক রবির কর্মীরা

করোনাভাইরাস : হটলাইনে কল বাংলালিংক থেকে ফ্রি

স্পেকট্রাম কেনার ফল এতদিনে পাচ্ছে বাংলালিংক

*

*

আরও পড়ুন