অভিবাসীদের ব্যক্তিগত তথ্য উন্মুক্ত করে বিপাকে অস্ট্রেলিয়া

Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : সাধারণ আইনেই যেখানে কারো ব্যক্তিগত তথ্য জনসম্মুখে ফাঁস বা উন্মুক্ত করে দেওয়া অন্যায়, সেখানে সাত লাখ ৭৪ হাজার অভিবাসীর ব্যক্তিগত তথ্য অনলাইনে উন্মুক্ত করে দিলো অস্ট্রেলিয়ার স্বরাষ্ট্র বিভাগ।

যদিও সেখানে অভিবাসীদের ব্যাপারে আভ্যন্তরীণ কর্মসংস্থান, শৃঙ্খলা ও দাপ্তরিক ব্যবস্থাপনার সুবিধার জন্য এমনকি করা হয়েছে বলে যুক্তি দেওয়া হয়েছে।

দেশটির স্কিলসিলেক্ট ডিজিটাল প্লাটফর্মে এসব তথ্য উন্মুক্ত করা হয়। এখানে অভিবাসীদের বয়স, জন্ম, জন্মস্থান, বৈবাহিক অবস্থা, যোগ্যতা, আবেদনের সর্বশেষ অবস্থা, কোন দেশ থেকে এসেছে–এমন কিছু তথ্য ডেটাবেইজ আকারে সংরক্ষণ করা হয়েছে।

যুক্তরাজ্য ভিত্তিক প্রভাবশালী গণমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান এ ব্যাপারে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। প্রতিবেদনে এ ব্যাপারটিকে স্পর্শকাতর হিসেবে উল্লেখ করা হয়।

কারণ এসব তথ্য কোনো একজন মানুষ সম্পর্কে জানার জন্য যথেষ্ট, যা জনসম্মুখে কখনোই উন্মুক্ত করা উচিত না। আইনগতভাবে কারো তথ্য উন্মুক্ত করতে হলে সাধারণত ওই ব্যক্তি ও প্রাইভেসি সংশ্লিষ্ট দপ্তর উভয় পক্ষকে অবগত করতে হয়।

গার্ডিয়ানে প্রতিবেদন প্রকাশের পর নড়েচড়ে বসেছে অস্ট্রেলিয়া সরকার। স্কিলসিলেক্ট ডিজিটাল প্লাটফর্মটি সংস্কার করার জন্য অনলাইন থেকে শিগগিরই অফলাইনে নেওয়া হবে বলেও জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

সূত্র : ইন্টারনেট, টিআর/মে ৪/২০২০/১৩৪০

আরও পড়ুন – 

জর্জিয়ার সব নাগরিকের ব্যক্তিগত তথ্য ফাঁস!

ব্যক্তিগত তথ্য বিক্রি করে আয় করতে চান?

ইসরায়েলি কোম্পানির ভুলে ৫ কোটি মানুষের তথ্য অনিরাপদ

গুগলকে তথ্য না দিতে চাইলে যা করবেন

লিঙ্কডইনের তথ্য নিয়েছে জুম

*

*

আরও পড়ুন