অধ্যাপক জামিলুর রেজার শোকের আবহে ফেইসবুক

Zamilur reza-Bff-21 Podok-Techshohor
অধ্রাপক জামিলুর রেজা চৌধুরী। ছবি :ইন্টারনেট
Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : জাতীয় অধ্যাপক জামিলুর রেজা চৌধুরীর মৃত্যু সংবাদ ছড়িয়ে পড়ার পর থেকেই ফেইসবুকে সেটি ভাসতে শুরু করে। ভোর থেকে সকাল গড়াতেই সংবাদটি অনেকের ফেইসবুক টাইম লাইন স্থান করে নিয়েছে। 

সোমবার দিবাগত রাতে নিজ বাসভবনে দেশবরেণ্য প্রকৌশলী, জাতীয় অধ্যাপক এবং এশিয়া প্যাসিফিক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক জামিলুর রেজা চৌধুরী মারা যান। 

মিজানুর রহমান নামের এক ফেইসবুক ব্যবহারকারী তার মৃত্যু সংবাদ শেয়ার করে লিখেছেন, এই মানুষটাকে আমার সুপারম্যান মনে হতো। ওপারে ভালো থাকবেন প্রিয় সুপারম্যান। 😞 

দেশ থেকে একটি নক্ষত্রের বিদায় হলো এটা মেনে নিতেই হয়। তিনি একাধারে নানান ধরনের কাজের সঙ্গে জড়িত ছিলেন। সরকারের উন্নয়নমূলক বেশ কিছু প্রকল্পের পরামর্শক, বিশেষজ্ঞ হিসেবে কাজ করেছেন এবং করছিলেন। 

দেশের অন্যতম বড় প্রকল্প পদ্মা সেতুর বিশেষজ্ঞ প্যানেলের প্রধান ছিলেন তিনি। 

আবদুর রাজ্জাক সরকার তার টাইমলাইনে মৃত্যু সংবাদ শেয়ার করে লিখেছেন, এমন বিনয়ী স্কলার ও সংগঠক দেশ আর কখনো পাবে কিনা সন্দেহ। তাকে দেখলেই মন থেকে শ্রদ্ধা আসতো। তার পরামর্শেই পদ্মা সেতুর কাজটিও চলছিল দারুণ গতিতে। এই সংকটকালে আপনার চলে যাওয়া অনেক বড় ক্ষতি স্যার। 

দেশে গণিত ও  বিজ্ঞান শিক্ষায় তরুণদের অনুপ্রাণিত করতে কাজ করেছেন তিনি। গণিত অলিম্পিয়াড, বিজ্ঞান অলিম্পিয়াড আয়োজনের পুরোধা ছিলেন। একই সঙ্গে তরুণ ও শিশু-কিশোরদের মধ্যে প্রোগ্রামিংকে উৎসাহিত করতে কাজ করেছেন। জড়িত ছিলেন বিশ্ব প্রোগ্রামিংয়ের মর্যাদাপূর্ণ আয়োজন এসিএম-আইসিপিসির সঙ্গে। 

তিনি সবকিছুর উর্ধ্বে উঠে একজন শিক্ষক হিসেবে প্রতিষ্ঠা করেছিলেন নিজেকে। সেই দিকটি তুলে ধরেছেন রাসেল টি আহমেদ। তিনি শোক প্রকাশ করে লিখেছেন, সরাসরি ছাত্র না হয়েও আমার মত লক্ষ লক্ষ ছাত্রের আপন হয়েছিলেন একজন JRC Sir। সবার ভাল কাজের খোঁজ রাখার অসম্ভব দারুন এক গুন ছিল স্যারের। দেখা হলেই এক গাল হাসি দিয়ে জিজ্ঞেস করতেন – কেমন আছো স্পেলিং বি রাসেল? সামনে এবার নতুন কি নিয়ে আসছো?
যেখানেই থাকেন, ভাল থাকবেন স্যার।

বিজ্ঞান চর্চায় গড়ে তুলেছিলেন বাংলাদেশ ফ্রিডম ফাউন্ডেশন। সেখানে ট্রাস্টি এবং সদ্য বিদায়ী সভাপতির দায়িত্বও পালন করেছেন এই গুণী মানুষ। ফাউন্ডেশনও তার মৃত্যুতে ফেইসবুকে শোক প্রকাশ করেছে।

শত শত পোস্টে তারই শোকগাঁথা ফেইসবুক জুড়ে। 

তার মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। জামিলুর রেজা চৌধুরী জাতির জন্য বিরল প্রতিভা ছিলেন উল্লেখ করে দেশের উন্নয়নে তার অবদান যুগ যুগ মানুষ স্মরণ করবে বলে জানান মন্ত্রী।

এইক সঙ্গে জামিলুর রেজার মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। 

তার মৃত্যু জাতির জন্য অপূরণীয় ক্ষতি উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, বিশেষজ্ঞ সিভিল ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে অসংখ্য উন্নয়ন প্রকল্পে কাজ করার পাশাপাশি জামিলুর রেজা তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়েও সরকারের পরামর্শক হিসেবে কাজ করেছেন। তার অবদান জাতি চিরদিন স্মরণ রাখবে।

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক জামিলুর রেজা চৌধুরীর হাত ধরে গড়ে বিশ্ববিদ্যালয়টির ইনস্টিটিউট অব ইনফরমেশন অ্যান্ড কমিউনিকেশন টেকনলজি বিভাগ। তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা জামিলুর রেজা চৌধুরী ছিলেন ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম উপাচার্য। পরে ইউনিভার্সিটি অব এশিয়া প্যাসিফিকের উপাচার্য হিসেবে যোগ দেন তিনি।

অধ্যাপক জামিলুর রেজার জন্ম ১৯৪৩ সালে, সিলেটে। তার পরিবারের সবাই প্রকৌশলী ছিলেন। সেই পথেই হেঁটেছেন তিনিও।  

 ইএইচ/এপ্রি২৮/২০২০/১৩১৫

*

*

আরও পড়ুন