Techno Header Top and Before feature image

ঢাকায় পণ্য সরবরাহে বাধা কাটলো ই-কমার্সগুলোর

ছবি : টেকশহর

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ঘরে বসে গ্রোসারিসহ বিভিন্ন নিত্যপণ্য কেনাকাটা করছেন অনেক মানুষ। আর সেসব পণ্য ঘরে পৌঁছে দিতে গিয়ে নানা ধরনের বাধার মুখে পড়ছিলেন ই-কমার্স ব্যবসায়ীরা।

অবশেষে সেই সমস্যার সামধান হয়েছে। বিশেষ পরিস্থিতিতে জরুরি ও নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য সরবরাহ করতে ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশের আবেদনে সম্মতি দিয়েছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ।

এতে করে এখন ই-ক্যাবের সদস্য প্রতিষ্ঠানগুলো ঢাকার ভিতরে পণ্য সরবরাহ কাজে বাইসাইকেল, মোটর বাইক, কাভার্ডভ্যান বা অন্য কোনো যানবাহন ব্যবহার করতে পারবেন।

শনিবার ঢাকা মেট্রো পলিটন পুলিশ কমিশনার পক্ষে অনুমতি পত্রে স্বাক্ষর করেন অপারেশনস বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার প্রবীর কুমার রায়।

এই অনুমতি পাওয়ায় এখন থেকে ঢাকা মহানগরীতে ই-ক্যাব সদস্যরা সংগঠনটির কাছ থেকে সেটি নিয়ে তাদের কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারবেন।

ই-ক্যাবের পক্ষ থেকে জানানো হয়, এখন তারা সদস্য প্রতিষ্ঠানগুলোকে ডিএমপির দেওয়া অনুমতি পত্র দেবেন। এরপরই কেবল সদস্য প্রতিষ্ঠানগুলো পণ্য সরবরাহে কাজ করতে পারবে।

ই-ক্যাবের সেক্রেটারি জেনারেল মোহম্মদ আব্দুল ওয়াহেদ তমাল বলেন, আমরা শুরু থেকে এ ব্যাপারে তৎপর রয়েছি। নিজ নিজ বাসায় থাকা জনসাধারণ যেন ঘর থেকে বের হতে না হয় তাদের জন্য জরুরি সেবা চালু রাখতে ই-ক্যাব সদস্য প্রতিষ্ঠানগুলো অবিরাম পরিশ্রম করে যাচ্ছে। ডিএমপি কমিশনার  আমাদের ডাকে সাড়া দিয়েছেন। এছাড়া বিভাগীয় কমিশনারের অনুমতির পর বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে আমরা একটা অনুমতিপত্র পেয়েছি যাতে সারা দেশে জরুরি সেবা চলমান রাখা যায়।

সর্বশেষ প্রধানমন্ত্রীর অফিস থেকে যে পরিপত্র জারি হয়েছে তার ভিত্তিতে আমাদের সদস্য প্রতিষ্ঠানগুলোর একটা অংশ তাদের সেবা অব্যাহত রেখেছিল। এখন ডিএমপি কমিশনারের এই অনুমতির মধ্য দিয়ে মাঠ পর্যায়ের সমস্যাও কেটে যাবে বলে প্রত্যাশা করেন তিনি।

ইএইচ/এপ্রি১১/২০২০/১৬৩৮

আরও পড়ুন –

ই-কমার্সে ডেলিভারি হবে শুধু জরুরি পণ্য

ই-কমার্সে বিদেশিদের দেশীয় অংশীদার রাখার বাধ্যবাধকতা বাতিল

স্থানীয় ই-কমার্স উদ্যোক্তারা সুরক্ষা চান

গ্রাহকরা কি ই-কমার্সে ঠকছেন?

ই-কমার্সে বিদেশি বিনিয়োগ নিয়ে ইক্যাবের পলিসি ডায়ালগ

*

*

আরও পড়ুন