হাসপাতাল পরিচালনায় টেক জায়ান্টদের সহায়তা চায় যুক্তরাজ্য

ছবি: ইন্টারনেট থেকে নেওয়া
Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর: হাসপাতাল পরিচালনায় স্মার্ট সিদ্ধান্ত নিতে প্রযুক্তি কোম্পানিগুলোর সহায়তা চেয়েছে যুক্তরাজ্য। যুক্তরাজ্যের জাতীয় স্বাস্থ্য সেবা সংস্থা (এনএইচএস) হাসপাতালগুলোর ভবিষ্যৎ ধারণক্ষমতা অনুমান করতে সহায়তা করার জন্য টেক জায়ান্টদের প্রয়োজনীয় ডাটাও সরবরাহ করতে রাজি হয়েছে।

এ কাজে ১১১-স্বাস্থ্য সেবা হটলাইনের কল থেকে প্রাপ্ত স্বাস্থ্য তথ্য ব্যবহার করা হবে।

এই ডাটাকে অন্যান্য ডাটার সঙ্গে মিলিয়ে ‘রোবাস্ট প্রেডিক্টিভ মডেল’ নির্মাণ করে হাসপাতালগুলোকে সামনের দিনগুলোতে কত ভেন্টিলেটর লাগবে, কত বেড লাগবে এসব তথ্য জানান হবে।

এই কাজে যুক্তরাজ্য সরকারকে সহযোগীতা করছে অ্যামাজন, মাইক্রোসফট, প্যালান্টির এবং ফ্যাকাল্টি এআই।

কতটি ভেন্টিলেটর আছে, কোথায় ব্যবহৃত হচ্ছে, কারা চালাতে দক্ষ, কজনকে ট্রেইনিং দেওয়া হচ্ছে, কতজন কর্মী অসুস্থ হতে পারে, ভেন্টিলেটরে একজন রোগীর গড় স্থায়িত্ব, একজন রোগীর হাসপাতালে থাকার সময়কাল ইত্যাদি ডাটা পর্যালোচনা করে মডেল তৈরি করা হবে।

তবে রোগীদের তথ্য টেক কোম্পানিগুকে দেওয়া নিরাপদ কিনা তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। যদিও সরকারের তরফ থেকে নিশ্চিত করা হয়েছে যে, সংকট মোকাবেলা করার পর সব ব্যাক্তিগত তথ্য মুছে দেওয়া হবে, এবং সব টেক কোম্পানি বিষয়টিতে রাজি হয়েছে।

যদিও প্যালান্টিরের উপস্থিতি এই বিষয়ে নিশ্চিত করতে পারছে না। কারণ কোম্পানিটি প্রযুক্তি জগতে সবচেয়ে রহস্যময় একটি কোম্পানি। কোম্পানিটির সহপ্রতিষ্ঠাতা পিটার থিয়েলের যুক্তরাজ্যের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বেশ ঘনিষ্ঠ এবং যোগাযোগ রক্ষা করে যুক্তরাজ্যের সাইবার গোয়েন্দা প্রতিষ্ঠান জিসিএইচকিউর সঙ্গেও।

এদিকে এই বিষয়টি নিয়ে ইতোমধ্যেই কাজ করেছে পেন মেডিসিন। তারা তাদের কোভিড ১৯ হসপিটাল ইমপ্যাক্ট মডেল ড্যাশবোর্ডটি উন্মুক্ত করে দিয়েছে। এই মডেল থেকেও অনুমান করা যায় আগামী ২০০ দিন পর্যন্ত একটি হাসপাতালকে কীভাবে প্রস্তুত রাখতে হবে।

সূত্র : বিবিসি, এমআর/মার্চ ২৯/২০২০/০১৫১

*

*

আরও পড়ুন