Header Top

করোনাভাইরাস শনাক্তে লোকেশন ডেটা ব্যবহার করতে চায় যুক্তরাষ্ট্র

লোকেশন ডেটা ব্যবহার করে করোনাভাইরাস রোগী শনাক্ত করতে চায় যুক্তরাষ্ট্র। ছবি : টেকশহর

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : যুক্তরাষ্ট্রেরও দ্রুত হারে ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস। সর্বশেষ এক দিনে দেশটিতে অন্তত তিন হাজার মানুষ কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হয়েছে। এই অবস্থায় দেশটির নাগরিকদের লোকেশন ডেটা ব্যবহার করে করোনাভাইরাস শনাক্ত করতে চায় ট্রাম্প প্রশাসন।

এজন্য ট্রাম্প প্রশাসন ইতোমধ্যে ফেইসবুক, গুগলসহ অন্যান্য প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে আলোচনায় বসেছে। সেখানে কিভাবে আমেরিকানদের মোবাইল ফোনের লোকেশন ডেটা ব্যবহার করে করোনা শনাক্ত করা যায় সে বিষয়ে আলোচনা হয়েছে।

ফেইসবুক এবং গুগল সংবাদ মাধ্যম সিএনএনের কাছে নিশ্চিত করেছে যে, তারা সম্মিলিতভাবে লোকেশন ডেটা নিয়ে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে কাজ করবে। বিষয়টি নিশ্চিত করে গত মঙ্গলবার প্রথম প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে ওয়াশিংটন পোস্ট।

অন্যদিকে এই আলোচনার অংশ হচ্ছে না মার্কিন আরেক জায়ান্ট অ্যাপল।  সিএনএনের এক প্রশ্নের উত্তরে অ্যাপল জানিয়েছে, তারা লোকেশন ডেটা নিযে কাজ করতে চাওয়া ওই আলোচনার অংশ হচ্ছে না।

অবশ্য লোকেশন ডেটা কনোরাভাইরাস শনাক্ত করতে বেশ কয়েকদিনের যে চলমান সিরিজ মিটিং চলছে প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান ও হোয়াইট হাউজ তারই একটা অংশ এটা। সেখানে সিলিকন ভ্যালি করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে কিভাবে কাজ করতে পারে সে বিষয়ে হোয়াইট হাউজের সঙ্গে পরিকল্পনা করছে বলে বিশেষজ্ঞরা মতামত ব্যক্ত করছেন।

অনানুষ্ঠানিকভাবে বেশ কয়েকটি গ্রুপ এই উদ্যোগের সঙ্গে আছে। যেখানে ফোকাস করা হচ্ছে কিভাবে ভার্চুয়াল শিক্ষা, টেলিহেলথ সেবা দেওয়া যায়। আর মূল লক্ষ্য কিভাবে করোনা সংক্রমণ ঠেকানো যায় সেদিকে। এছাড়াও চতুর্থ হিসেবে জিওলোকেশন ডেটা শেয়ার করে কিভাবে রোগ প্রতিরোধ করা যায় সে বিষয়টিও প্রাধান্য পাচ্ছে।

একজন বিশেষজ্ঞ জানিয়েছেন, বিশ্বব্যাপী কোটি কোটি মানুষের গতিবিধি জানা যায় লোকেশন ডেটার মাধ্যমে। আর করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে কিভাবে সেটি ব্যবহার করে সুফল পাওয়া যায় তা করতে অনেক দেশের সরকারের কাছ থেকে মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরকে জানানো হয়েছে। তাই ব্যবস্থাটি কিভাবে নেওয়া যায় সে চেষ্টাই করছে ট্রাম্প প্রশাসন।

সূত্র ইন্টারনেট : ইএইচ/মার্চ১৯/ ২০২০/ ২০৩৫

*

*

আরও পড়ুন