Header Top

স্ত্রী-পুত্রের কাছেও শেয়ার বিক্রি করতে হবে

ফাইবার-অ্যাট-হোম-লোগো-টেকশহর

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ফাইবার অ্যাট হোমের চেয়ারম্যান ও এক অংশীদারকে স্ত্রী ও পুত্রের কাছে শেয়ার হস্তান্তর নয়, বিক্রি করতে হবে।

ন্যাশনওয়াইড টেলিকমিউনিকেশন ট্রান্সমিশন নেটওয়ার্ক (এনটিটিএন) অপারেটরটির আংশিক শেয়ার হস্তান্তর করতে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসির কাছে আবেদন করেছিলেন চেয়ারম্যান মইনুল হক সিদ্দিকী ও শেয়ারহোল্ডার ওয়াহিদুল হক সিদ্দিকী।

মইনুলের ইচ্ছে তার স্ত্রী ফারিহা শারমিন সিদ্দিকী এবং ছেলে রাব্বি সিদ্দিকীকে কোম্পানির পরিচালক করতে তাদের নামে শেয়ার হস্তান্তর করবেন।

এ জন্য চেয়ারম্যান সম্প্রতি কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদে শেয়ার ‘দানপত্র’ বিষয়ক একটি প্রস্তাব অনুমোদন করিয়ে নেন। পরে সেটিসহ বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক কমিশনে (বিটিআরসি) আবেদন করেন।

মইনুল চাইছিলেন দুই জনের নামে সব মিলে এক কোটি ৮৪ লাখ ৮৭ হাজার ৪৯৩ শেয়ার হস্তান্তর করবেন।

কমিশন অবশ্য এ প্রস্তাব গ্রহণ না করে বিক্রি ছাড়া আর কোনো উপায়ে শেয়ার হস্তান্তর করা যাবে না বলে জানিয়ে দেয়।

বিটিআরসির যুক্তি শেয়ার কেনাবেচার সাড়ে ৫ শতাংশ অর্থ ফি হিসেবে দিতে হবে। পরিশোধিত ফি’র ওপর ১৫ শতাংশ ভ্যাটও পাবে সরকার।

ওই একই আবেদনে ফাইবার অ্যাট হোমের অন্য আরেক শেয়ার হোল্ডার ওয়াহিদুল হক সিদ্দিকীও তার স্ত্রী কুররাতুল আইন সিদ্দিকীর কাছে ৩০ লাখ এক হাজার ৬০০ শেয়ার হস্তান্তর করতে চেয়েছিলেন।

উভয় প্রস্তাব অনুমোদন করেনি কমিশন।

ফাইবার অ্যাট হোম সংশ্লিষ্টরা বলছেন, স্বচ্ছতার সঙ্গে তারা কাজটি করতে চেয়েছিলেন। হস্তান্তরের বিষয়টি অনুমোদন না হওয়ায় এখন তারা নামমাত্র মূল্যে বা এক টাকায় শেয়ার বিক্রির পথে যাওয়া ছাড়া তাদের আর কোনো উপায় থাকবে না।

২০০৯ সালের জানুয়ারিতে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের এক্কেবারে শেষ সময়ে এসে দেশের প্রথম এনটিটিএন অপারেটর হিসেবে যাত্রা করে ফাইবার অ্যাট হোম। পরে আরো কয়েকটি কোম্পনিকে একই লাইসেন্স দেয় সরকার।

এনটিটিএন কোম্পানিগুলোর কাজ হল সারাদেশে আন্ডারগ্রাউন্ড ফাইবার নেটওয়ার্ক তৈরি করা যাতে করে উপরে ঝুলে থাকা সব কেবল সরে যায়। কিন্তু এনটিটিএন কোম্পানিগুলো সেই কাজে তেমন একটা সফল হতে পারেনি।

গত দশ বছরের বেশি সময়ে ফাইবার অ্যাট হোম সব মিলে মাত্র ৪৫ হাজার কিলোমিটার ফাইবার নেওয়ার্ক করেছে। এর মধ্যে সবচেয়ে বড় অংশ তারা তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রনালয়ের প্রকল্পের আওতায় করেছে।

এনটিটিএন লাইসেন্সের পর আরও কয়েকটি টেলিযোগাযোগ লাইসেন্স পায় ফাইবার অ্যাট হোম।

জেডএ/আরআর/মার্চ ১৬/২০২০/১৩.৪৪

আরও পড়ুন –

অবশেষে নতুন এনটিটিএন লাইসেন্সের অনুমোদন

২৬০০ ইউনিয়নে ব্রডব্যান্ড পৌঁছাবে দুই এনটিটিএন

অতিরিক্ত ভ্যাট-ট্যাক্স টেলিকম খাতের বিকাশ বাধাগ্রস্ত করছে

*

*

আরও পড়ুন