মস্তিষ্ক ও কম্পিউটারকে সংযোগ করার চেষ্টায় ইলন মাস্ক

সূত্র: ইন্টারনেট থেকে নেওয়া
Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর: ইলন মাস্কের ডিপ লার্নিং কোম্পানি নিউরালিংক মানুষের মস্তিষ্কের সঙ্গে কম্পিউটারের মিশেল ঘটানোর জন্য নিরলস কাজ করে যাচ্ছে।

সম্প্রতি এক টুইটে ইলন নিউরালিংকের অগ্রগতিকে চমকপ্রদ বলে আখ্যা দেন। সেই সঙ্গে চমক জাগানিয়া খবরের জন্য সবাইকে কিছুটা অপেক্ষা করার অনুরোধ করেন।

ইতোপূর্বে ইলন মাস্ক নিউরালিংকের ব্রেইন-কম্পিউটার ইন্টারফেস (বিসিআই) নির্মাণের প্রচেষ্টা সম্পর্কে সবাইকে অবহিত করেন।

ব্রেইন-কম্পিউটার ইন্টারফেস হচ্ছে মানুষের মস্তিষ্ক ও কম্পিউটারকে এক করার একটি প্রক্রিয়া। নিউরালিংকের এই প্রচেষ্টা সফল হলে এটি মস্তিষ্কভিত্তিক অসুখের চিকিৎসায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখতে পারে।

উদ্দেশ্য অর্জনে নিউরালিংক মস্তিষ্কের ভেতর ও বাহির থেকে কম্পিউটারের সঙ্গে সংযোগের দুটি আলাদা পদ্ধতি পরীক্ষা করছে।

মস্তিষ্কের ভেতরে ঢোকার পদ্ধতিটি নিয়ন্ত্রিত হবে অতিক্ষুদ্র রোবট দিয়ে। যেগুলো মানুষের চুলের দশ ভাগের এক ভাগ চিকন, এমন ৯৬টি রোবট তার মস্তিষ্কের সঙ্গে সংযুক্ত করবে। এরপর সেটি থেকে প্রাপ্ত সিগনাল দিয়ে কম্পিউটারকে নিয়ন্ত্রণ করা হবে। এদিকে, মস্তিষ্কের বাহির থেকে সিগনাল সংগ্রহ পদ্ধতি এখন পর্যন্ত ফলাফলের দিক থেকে নির্ভরযোগ্য নয়।

নিউরালিংকের ব্রেইন-কম্পিউটার ইন্টারফেস এখনও মানব মস্তিষ্কে পরীক্ষা করা হয়নি। তবে বানরের মস্তিষ্কে পরীক্ষা করা হয়েছে।

অবশ্য এখনো বিসিআই নিয়ে চূড়ান্ত কোনো মন্তব্য করার সময় আসেনি। এই পদ্ধতির নিরাপত্তা ছাড়পত্র পেতে অনেক পরীক্ষা-নিরীক্ষার মধ্য দিয়ে যেতে হবে। 

এমন পদ্ধতির সম্ভাবনা প্রচুর। পারকিনসন, ডিমেনশিয়া ও স্ট্রোকের কারণে মস্তিষ্কের কিছু স্থানের নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলা সমস্যার সমাধানে খুব কার্যকর ভূমিরা রাখতে পারে নিউরালিংক।

সূত্র: ইন্টারনেট, এমআর/মার্চ ০৭/২০২০/০৯২৩

*

*

আরও পড়ুন