জাতীয় হ্যাকাথনে বিজয়ী ১০ দল

সনদ হাতে বিজয়ীরা। ছবি : সংগৃহীত
Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় জনগুরুত্ব সমস্যার সমাধান করে জাতীয় হ্যাকাথনে বিজয়ী হয়েছে ১০টি দল।

শুক্র থেকে শনি আয়োজিত দুই দিনব্যাপী ‘ন্যাশনাল হ্যাকাথন অন ফ্রন্টিয়ার টেকনোলজিস’ অনুষ্ঠিত হয় ঢাকার ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ (আইইউবি) এর ক্যাম্পাসে।

বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের ‘উদ্ভাবন ও উদ্যোক্তা উন্নয়ন একাডেমী প্রতিষ্ঠাকরণ প্রকল্প’ (iDEA) এর মাধ্যমে আয়োজিত হ্যাকাথনটির সহযোগিতায় ছিলো  বাংলাদেশে অবস্থিত ভারতীয় হাই কমিশন ও টেক মাহিন্দ্রা।

শনিবার বিকেলে হ্যাকথন শেষে ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশের অডিটরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয় সমাপনী অনুষ্ঠান। সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে ছিলেন স্থানীয় সরকার, পল্লি উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী তাজুল ইসলাম।

অনুষ্ঠানে তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ বলেন, বিশ্বের সকল উদ্ভাবন এসেছে সরকার, একাডেমিয়া এবং ইন্ডাস্ট্রি এই তিনটি পক্ষের পারস্পরিক সমঝোতা ও অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে। সকল তরুণ ইনোভেটরদের ভবিষ্যতে স্টার্টআপ বাংলাদেশের পক্ষ থেকে সহোযোগিতা করা হবে বলেও জানান তিনি।

বক্তব্য শেষে বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয়। অন্যেষা প্রকল্পে কাজ করে গুজব প্রতিরোধে সমন্বিত ব্যবস্থা প্রবর্তন চ্যালেঞ্জের বিজয়ী দল অনটন। ডিজিটাল পাবলিক সার্ভিস প্ল্যাটফর্ম প্রকল্পে কাজ করে ইফেক্টিভ টুল তৈরি চ্যালেঞ্জের বিজয়ী দল সাউট টু। গ্রীন বিডি প্রকল্পে কাজ করে একটি কার্যকর ও আধুনিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনা পদ্ধতির প্রবর্তন চ্যালেঞ্জের বিজয়ী দল ট্রজান। ইন্টিগ্রেটেড মার্কেট ইন্টেলিজেন্স প্ল্যাটফর্ম প্রকল্পে কাজ করে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের মূল্য স্থিতিশীল রাখতে ইনটেগ্রেটেড মার্কেট ইন্টেলিজেন্স প্ল্যাটফর্ম তৈরি চ্যালেঞ্জের বিজয়ী দল অরিজিন্যাটিভ। অ্যান আইওটি বেইজড স্মার্ট ওয়্যারহাউস ফর প্রিজার্ভিং গ্রেইনস প্রপার্লি প্রকল্পে কাজ করে যথাযথভাবে খাদ্যশস্য সংরক্ষণে স্মার্ট ওয়্যারহাউস (এলএসডি/সিএসডি/সাইলো) চ্যালেঞ্জে বিজয়ী দল ব্রগ্রামার্স।পর্যবেক্ষণ প্রকল্পে কাজ করে অনুমোদিত বিল্ডিং কোড অনুযায়ী স্থাপনা তৈরিতে রিয়েল টাইম ইমারত নির্মাণ পরিবীক্ষণ ব্যবস্থা প্রবর্তন চ্যালেঞ্জে বিজয়ী দল ল্যাম্বডা।

অকুপেশনাল সেইফটি অ্যান্ড হেলথ প্রকল্প নিয়ে কাজ করে পেশাগত নিরাপত্তা ও স্বাস্থ্য নিশ্চিতকরণে যথাযথ ব্যবস্থা প্রবর্তন চ্যালেঞ্জে বিজয়ী দল রুয়েট অ্যাবাকাস। কমিউনিকেশন বেইজড রেইল ট্রাফিক কন্ট্রোল উইথ ক্যাব সিগনেইলিং প্রকল্পে কাজ করে রেল দুর্ঘটনা রোধে ‘ক্যাব সিগন্যালিং’ব্যবস্থার আধুনিকায়ন চ্যালেঞ্জে বিজয়ী দল সিগনাস। দি কোস্ট গার্ড প্রকল্পে কাজ করে নৌ-দুর্ঘটনা রোধে আধুনিক নৌযান সিগন্যালিং/ট্র্যাকিং পদ্ধতি চালুকরণ চ্যালেঞ্জে বিজয়ী জ্যান্ডার। ড্রাইভ সেইভ লাইভ প্রকল্পে কাজ করে সড়ক দুর্ঘটনা রোধে ড্রাইভিং লাইসেন্স এবং মোটরযান ফিটনেস সার্টিফিকেট প্রদান ব্যবস্থার আধুনিকায়ন চ্যালেঞ্জে বিজয়ী দল বুয়েট স্ক্যামারস।

বিজয়ী দলগুলোকে অ্যাওয়ার্ড ও সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়। পরবর্তীতে বিজয়ী দলগুলোর প্রকল্পস গ্রোথ পর্যায়ে নিয়ে আসতে সহযোগিতা করবে টেক মাহিন্দ্রা।

অনুষ্ঠানে আরও ছিলেন টেক মাহিন্দ্রার করপোরেট অ্যাফেয়ার্সের সভাপতি সুজিত বক্সী, বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় ডেপুটি হাইকমিশনার শ্রী বিশ্বদীপ, বিসিসির নির্বাহী পরিচালক পার্থপ্রতিম দেব, অতিরিক্ত সচিব রাশেদুল ইসলাম ও আইডিয়া প্রকল্পের পরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) সৈয়দ মজিবুল হক।

এজেড/ মার্চ ০২/২০২০/১১৪০

*

*

আরও পড়ুন