Header Top

ডেটা ব্যবহারে জিপিকে আরও পেছনে ফেলেছে রবি

ছবি : সংগৃহীত

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : গ্রাহক সংখ্যায় দেশের সবচেয়ে বড় অপারেটর গ্রামীণফোনকে ডেটা ব্যবহারের দিক দিয়ে অনেকটাই পেছনে ফেলেছে রবি।

দেশে ফোরজি চালুর মাত্র কয়েক মাসের মধ্যে রবি সেই যে গ্রাহক প্রতি মাসিক ডেটা খরচের হিসাবে গ্রামীণফোনকে টপকে গেল তারপর থেকে এর ব্যবধান শুধু বাড়ছে। যদিও গ্রাহক সংখ্যার দিক হতে গ্রামীণফোনের চেয়ে আড়াই কোটি গ্রাহক কম রবির।

২০১৯ সালের সর্বশেষ প্রান্তিকের হিসাব বলছে, রবির ইন্টারনেট গ্রাহক প্রতি মাসে এখন দুই হাজার ১৮৮ মেগাবাইট করে খরচ করছে। যা গ্রামীণফোনের ইন্টারনেট গ্রাহকের চেয়ে মাসে ১৪ শতাংশের বেশি।

ওই একই সময়ের হিসাব অনুসারে গ্রামীণফোনের প্রতিটি ইন্টারনেট সংযোগের বিপরীতে এখন মাসে খরচ হচ্ছে এক হাজার ৯১৩ এমবি ডেটা।

আগের মতোই বাংলালিংক রয়েছে একটু পেছনে। তাদের ইন্টারনেট গ্রাহকরা মাসে খরচ করেন গড়ে এক হাজার ৩৭০ এমবি করে ডেটা।

দেশের তিন বড় অপারেটরের আর্থিক প্রতিবেদন থেকে পাওয়া তথ্যে এই ব্যবধান দেখা গেছে।

ডেটার ব্যবহার বৃদ্ধির কারণ সম্পর্কে রবির চিফ করপোরেট অ্যান্ড রেগুলেটরি অফিসার সাহেদ আলম টেকশহরডটকমকে বলেন, ডেটা নেটওয়ার্কের উন্নয়নে গত কয়েক বছরে রবি উল্লেখযোগ্য হারে বিনিয়োগ করেছে। এরই সুফল রবির গ্রাহকেরা পেয়েছেন গ্রাহক প্রতি সর্বোচ্চ ডেটা ব্যবহারের সুযোগ পেয়ে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারিতে দেশে ফোরজি চালু হওয়ার পর থেকে ডেটার ব্যবহারের ক্ষেত্রে আমূল পরিবর্তন এসেছে।

ফোরজির আগ পর্যন্ত মাসে এক গিগাবাইটের বেশি মোবাইল ডেটা খরচ করার মতো গ্রাহক খুব একটা ছিলই না।

বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন বলছে, ২০১৯ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত দেশে নয় কোটি ৩৭ লাখ মোবাইল ইন্টারনেট সংযোগ আছে।

এর মধ্যে গ্রামীণফোনের হিসাবে তাদের কার্যকর ইন্টারনেট সংযোগের সংখ্যা চার কোটি ছয় লাখ। যাদের কাছ থেকে গত বছর অপারেটরটি দুই হাজার ৯৮০ কোটি টাকা আয় করেছে কেবল ডেটার মাধ্যমে।

গ্রামীণফোনের হিসাব বলছে, তাদের ফোরজি নেটওয়ার্কের মধ্যে এখন দেশের ৭৪ দশমিক ৫০ শতাংশ জনগণ রয়েছে।

রবি বলছে, তাদের থ্রিজি সাইটের (টাওয়ার) সংখ্যা ১০ হাজার ৫২৪ হলেও এর মধ্যে ফোরজি সেবা দিচ্ছে আট হাজার ৯১০ সাইট।

২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারিতে ফোরজি লাইসেন্স পাওয়ার পর দিন সারা দেশের সব জেলায় একযোগে ফোরজি সেবা চালু করে তারা রীতিমতো চমক সৃষ্টি করে ফেলেছিলেন।

ফোরজির প্রসারের কারণেই ২০১৮ সালের তুলনায় রবি ২০১৯ সালে ডেটায় ২৮ শতাংশ বেশি আয় করেছে।

গত বছর ডেটা থেকে ৯১৩ কোটি ৩৯ লাখ টাকায় আয় করেছে বাংলালিংক। যা আগের বছরের তুলনায় প্রায় ২৭ শতাংশ বেশি।

নিজেদের তিন কোটি ৬০ লাখ কার্যকর মোবাইল সংযোগের মধ্যে বছরের শেষের হিসেব অনুসারে দুই কোটি ১৯ লাখ ইন্টারনেট ব্যবহার করছে। তাদের কাছ থেকেই এসেছে ডেটার এই আয়।

২০১৮ সালে বাংলালিংক ডেটা থেকে আয় করেছিল ৭২৫ কোটি টাকা। তার আগের বছরে এই অংক ছিল ৬৩০ কোটি টাকার। এটি ২০১৬ সালে ছিল ৪৯০ কোটি টাকা।

আইজেডএস/এডি/২০২০/ফেব্রুয়ারি২৭/১৮০০

আরও পড়ুন –

৫২৩ কোটি টাকার শেয়ার ছাড়ার ঘোষণা রবির 

দুই শর্তে ঝুলছে রবির শেয়ারবাজারে আসা 

বাধার পরও বাড়ছে জিপি-রবি

*

*

আরও পড়ুন