Header Top

৩ মাসে আরো ১০০০ কোটি টাকা দিতে হবে জিপিকে

gp-house-techshohor
Evaly in News page (Banner-2)

টেকশহর কনটেন্ট কাউন্সিলর: আগামী তিন মাসের মধ্যে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনকে (বিটিআরসি) আরো এক হাজার কোটি টাকা দিতে গ্রামীণফোনকে নির্দেশনা দিয়েছে আপিল বিভাগ।

সোমবার প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে ছয় বিচারকের আপিল বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

গত রোববার গ্রামীণফোন কোর্টের আদেশ অনুসারে বিটিআরসিকে এক হাজার কোটি টাকার চেক প্রদান করে। আর তারপর বিষয়টি অবহিত করে সোমবার আবার সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে যায় তারা। সেখানে শুনানি শেষে আপিল বিভাগ এই নির্দেশনা দেয়।

আদালত বলেছেন, ওই সময়ের মধ্যে গ্রামীণফোন টাকা না দিলে বিটিআরসির নিরীক্ষা আপত্তি দাবির নোটিসের ওপর হাই কোর্টের দেওয়া নিষেধাজ্ঞা বাতিল হয়ে যাবে, ফলে প্রশাসক বসাতে তখন আর বিটিআরসি’র দিকে থেকে কোনো বাঁধা থাকবে না।

গ্রামীণফোনের কাছে অডিট আপত্তির ১২ হাজার ৫৭৯ কোটি ৯৫ লাখ টাকা দাবি করে চিঠি দেওয়ার পরেও গ্রামীণফোন কোনো সাড়া না দেওয়ায় বিটিআরসি তখন তখন তাদের নানা সেবা আটকে দিতে শুরু করে।

তার প্রেক্ষিতে গ্রামীণফোন গত বছর সেপ্টেম্বরে হাইকোর্টে গিয়ে স্থগিতাদেশ পায়। কিন্তু পরে বিষয়টি বিটিআরসি আপিল বিভাগে নিয়ে আসলে হাইকোর্টের রায় স্থগিত করে গ্রামীণফোনকে ২৩ ফেব্রুয়ারির মধ্যে দুই হাজার কোটি টাকা পরিশোধের নির্দেশনা দেয়।

ওই রায়ের বিরুদ্ধে গ্রামীণফোন রিভিউ আবেদন করে ৫৭৫ কোটি টাকা দেওয়ার প্রস্তাব করে। একই সঙ্গে সমান বারোটি কিস্তির দাবিও আবেদনও করেন তারা।

গত বৃহস্পতিবার রিভিউ আদেশের শুনানিতে তাদের প্রস্তাব আমলে না নিয়ে উচ্চ আদালত বরং পরবর্তী কার্যদিবসের মধ্যে এক হাজার কোটি টাকা জমা দেওয়ার নির্দেশনা দেয়।

গ্রামীণফোনের অডিট আপত্তিতে বিটিআরসির অংশ হিসেবে ৮ হাজার ৪৯৪ কোটির উল্লেখ করা হয়। আর এনবিআরের অংশ ৪ হাজার ৮৬ কোটি টাকা।

বিটিআরসির পাওনা দাবিকৃত ৮ হাজার ৪৯৪ কোটির টাকার মধ্যে মূল টাকা হলো ২ হাজার ২৯৯ কোটি টাকা। বাকি ৬ হাজার ১৯৪ কোটি টাকা বিলম্ব ফি, যেটি মূল টাকার ওপর চক্রবৃদ্ধি হারে হিসাব করা হয়েছে।

জেডআর/আরআর/ফেব্রুয়ারি ২৪/২০২০২/১১

আরও পড়ুন –

বিটিআরসিকে ১০০০ কোটি টাকা দিল গ্রামীণফোন

সময়সীমা পেরোলেই জিপি-রবিতে প্রশাসক : জয়

সিম নিয়ে পেঁয়াজের মতো অবস্থার আশংকা জিপির

*

*

আরও পড়ুন