বাঙালির রক্তে মিশে আছে বাংলা ভাষা : জব্বার

স্মারক ডাক টিকিট উন্মোচন করেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। ছবি : সৌজন্যে
Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, বাঙালির রক্তের সাথে, মেধামননের সাথে, মায়ের মুখের সাথে মিশে আছে বাংলা ভাষা।

তিনি বলেন, বিদেশি শক্তি যখন যারাই এদেশ শাসন করেছে তারা তাদের ভাষা চাপিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেছে, কিন্তু পারেনি। তারা বাঙালির মায়ের মুখের বাংলাকে  কেড়ে নিতে সক্ষম হয়নি।

মন্ত্রী শুক্রবার ঢাকার জিপিও অডিটরিয়ামে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে স্মারক ডাক টিকেট অবমুক্ত ও  আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, রক্তের বিনিময়ে মায়ের ভাষা বাংলাকে রাষ্ট্রভাষায় প্রতিষ্ঠা, এ ভাষার মর্যাদা রক্ষা ও বাংলা ভাষা ভিত্তিক বাংলাদেশ রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার নজির  বিশ্বে আর নাই।

তিনি বলেন, যন্ত্রে বাংলা লেখার সীমাবদ্ধতা নাই। প্রযুক্তির সুযোগ যথাযথ কাজে লাগানোর বিকল্প নেই।

একাত্তরের আগে এ ভূখণ্ড পাকিস্তানী, ইংরেজ, মোগল এবং এরও আগে বাইরের শক্তি শাসন করেছে। তারা প্রত্যেকেই তাদের ভাষা চাপানোর চেষ্টা করেছে কিন্তু পারেনি উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, উচ্চতর শিক্ষায় এবং উচ্চ আদালতে বাংলা ভাষা প্রবেশাধিকারের ওপর গুরুত্বারোপ করতে হবে।

বক্তব্যে মন্ত্রী বাংলাকে রাষ্ট্র ভাষা করার আন্দোলনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অবদান তুলে ধরেন। একই সঙ্গে তিনি জাতিসংঘের দাপ্তরিক ভাষা হিসেবে বাংলাকে যুক্ত করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রচেষ্টার কথাও তুলে ধরেন।

অনুষ্ঠানে ডাক অধিদপ্তরের ভারপ্রাপ্ত  মহাপরিচালক মো. হারুনুর রশীদের সভাপতিত্বে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মহিবুর রহমান বক্তৃতা করেন।

এছাড়াও ডাক অধিদপ্তর মহান ভাষা শহীদ ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ২০২০ উপলক্ষে দশ টাকা মুল্যমানের একটি স্মারক ডাকটিকিট প্রকাশ করে এবং পাঁচ টাকা মূল্যমানের একটি ডাটা কার্ডও প্রকাশ করা হয়েছে।

তার আগে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রীর নেতৃত্বে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ  এবং বিটিআরসিসহ অধীনস্থ  সংস্থাগুলো কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুস্পস্তবক অর্পন করে।

ইএইচ/ ফেব্রু ২১/ ২০২০/ ১৬০০

আরও পড়ুন –

মুখের ভাষায় বাংলা ষষ্ঠ, অনলাইনে খোঁজ নেই

সহজে ভাষা শেখাবে যে অ্যাপ

প্রচলিত শিক্ষার ধারণা বদলাতে হবে : মোস্তাফা জব্বার

*

*

আরও পড়ুন