Header Top

নির্বাচনী নিষেধাজ্ঞা মানছে না উবার, চলছে বাড়তি ভাড়ায়

ছবি : ইন্টারনেট

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : সিটি করপোরেশন ভোটের কারণে মোটরসাইকেল চলাচলে নিষেধাজ্ঞার মধ্যে বাড়তি ভাড়া নিয়ে রাস্তায় উবার।

প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী ৩০ জানুয়ারি রাত ১২ টা হতে মোটরসাইকেল চলাচলে নিষেধাজ্ঞা শুরু হয়ে গেছে, যা বলবৎ ২ ফেব্রুয়ারি সকাল ৬টা পর্যন্ত।

কিন্তু নিষেধাজ্ঞার ১২ ঘন্টা পেরিয়ে গেলেও উবার মোটো বন্ধ করা হয়নি। উল্টো এই সময়ে তুলনামূলক কম যানজটের রাস্তায় এবং অফপিক আওয়ারে সাধারণ ভাড়ার দ্বিগুণ-তিনগুণ ভাড়া প্রদর্শন হতে দেখা যাচ্ছে।

পাঠাও, সহজসহ অন্যান্য রাইডশেয়ারিং কোম্পানিগুলো অবশ্য সিটি নির্বাচনের এই বিধিনিষেধ মানছে। ইতোমধ্যে তারা নোটিশ নিয়ে নিষেধাজ্ঞার সময়ে তাদের সেবা পাওয়া যাবে না সেটি জানিয়ে দিয়েছে। উবারের এ ধরনের কোনো নোটিশও দেয়নি।

শুক্রবার সকাল ১১ টা ২০ মিনিটে উবার অ্যাপে উবার মোটোতে রাইড একসেপ্ট করেন চালক বিপ্লব। তিনি যখন কল করে জানতে চান কোথায় আছি এবং কোথায় যাবো তখন প্রশ্ন করা হয়েছিল, সিটি ভোটের কারণে এখন তো বাইক চালাচলে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। আপনি যে চলছেন, পথে অসুবিধা হচ্ছে না ?

তিনি উত্তর দেন, ‘নিষেধাজ্ঞা তো আছে। তবে চালাচ্ছি তো। তেমন অসুবিধা হচ্ছে না’

এই রাইডটি ছিল পান্থপথ হতে মনোয়ারা হাসপাতাল পর্যন্ত, ভাড়া দেখাচ্ছিল ১৩৬ টাকা। অথচ সাধারণ সময়ে(পিক-অফপিক ও অফার) এতে ভাড়া থাকতো ৩৫ হতে ৫৫ টাকার মধ্যে।

একটু পরে আরেক রাইডার মো. আমিনুর। তিনি নিষেধাজ্ঞার সময় বলছেন ৩১ জানুয়ারি দিবাগত রাত হতে।

উবার হতে কোনো নোটিশ কী আপনারা পাননি ? আমিনুর না পাওয়ার কথা জানালেন। যখন বলা হলো বাইকের জন্য নিষেধাজ্ঞা ইতোমধ্যে শুরু হয়ে গেছে ৩০ জানুয়ারি দিবাগত রাত ১২ টা হতে তখন তিনি কল কেটে দেন।

আমিনুরের কাছে রাইড রিকোয়েস্ট ছিল পান্থপথ হতে সাতরাস্তার আগে ট্রাক স্ট্যান্ড সংলগ্ন ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকায় দৈনিক সমকালের নতুন অফিস পর্যন্ত। ভাড়া দেখানো হলো ৬২ টাকা। অথচ এটি ‘সাধারণ সময়ে’ ৩৫ হতে ৫০ টাকার মধ্যে থাকে।

গত ২৭ জানুয়ারি নির্বাচন উপলক্ষ্যে ঢাকায় যানবাহন চলাচলে বিধি-নিষেধ আরোপের এই প্রজ্ঞাপন জারি করে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়।

১ ফেব্রুয়ারি, শনিবার ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে একযোগে ভোটগ্রহণ হবে।

প্রজ্ঞাপনে জানানো হয়, মোটরসাইকেল চলাচলে নিষেধাজ্ঞা ৩০ জানুয়ারি দিবাগত রাত ১২টা থেকে ২ ফেব্রুয়ারি সকাল ৬টা পর্যন্ত। আর ৩১ জানুয়ারি দিবাগত রাত ১২টা থেকে ১ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত বাস, বেবি ট্যাক্সি/অটো রিকশা, ট্যাক্সি ক্যাব, মাইক্রোবাস, জিপ, পিকআপ, কার, ট্রাক, টেম্পু, অন্যান্য যন্ত্রচালিত যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে।

তবে অনুমতি সাপেক্ষে নির্বাচনী কাজ যুক্ত যানবাহন চলবে। এছাড়া অ্যাম্বুলেন্স, ফায়ার সার্ভিস, বিদ্যুৎ, গ্যাস, ডাক ও টেলিযোগাযোগ ইত্যাদি জরুরি কিছু যানবাহন চলতে পারবে।

এডি/২০২০/জানুয়ারি৩১/১২২২

*

*

আরও পড়ুন