জনগণের কল্যাণেই ডিজিটাল সার্ভিস : পলক

কর্মশালায় বক্তব্য রাখছেন তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। ছবি : ফেইসবুক থেকে
Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : মুজিবর্ষ উপলক্ষ্যে বাছাই করা ডিজিটাল সার্ভিস পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর জনগণের জন্য উন্মোচন করার কথা জানিয়েছেন তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

২০২০ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী উদযাপন বছরে ১০০ ডিজিটাল সার্ভিস আনার ঘোষণা দিয়েছে সরকার। সেসব ডিজিটাল সার্ভিস নির্বাচন, সেগুলোর মূল্যায়নে কাজ করছে তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগ। 

রোববার ‘১০০ ডিজিটাল সার্ভিস মূল্যায়ন’ বিষয়ক কর্মশালায় প্রধান অতিথি ছিলেন তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী। কর্মশালার সমাপনী অনুষ্ঠানে বক্তব্যে তিনি বলেন, আজকে ১০টি ডিজিটাল সার্ভিস নিয়ে মূল্যায়ন কর্মশালা হয়েছে। এগুলো আরও বিশদভাবে মূল্যায়ন করা হবে। কর্মশালা থেকে সার্ভিসগুলোর ভালো খারাপ দিক উঠে এসেছে। 

তিনি জানান, এই দশটি সার্ভিস এখন পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হবে। এরপর এগুলোকে চূড়ান্ত করা হবে। তার আগে সেটি ব্যবহার করে দেখা হবে সেগুলো কিভাবে জনগণের সর্বোচ্চ কল্যাণে আসে। 

এই দশটি সার্ভিসের সঙ্গে আরও ৯০টি ডিজিটাল সার্ভিস নির্বাচন করে, সেগুলোকেই একইভাবে এই ধাপগুলো পার করে চূড়ান্তভাবে প্রধানমন্ত্রীর হাতে তুলে দেওয়া হবে বলে জানান প্রতিমন্ত্রী পলক। 

পলক বলেন, আমরা সার্বিক সেবা দেবার জন্য জাতীয় জরুরি নম্বর ৯৯৯ চালু করতে পেরেছি। এতে গত এক বছরে দেড় কোটি ফোনকল এসেছে। মানুষ সেবা পাচ্ছে। তেমনি স্বাস্থ্য সম্পর্কিত সেবার জন্য ৩৩৩ চালু করা হয়েছে। এমন জনকল্যাণমুখী সেবা আনতে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। 

এজন্য বঙ্গবন্ধু জন্ম শতবার্ষিকীতে তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের কর্মীরা শপথ নিয়েছি অতিরিক্ত ১০০ ঘণ্টা কাজ করবেন বলেও জানান পলক। 

মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে ১০০ ডিজিটাল সার্ভিস মূল্যায়ন কর্মশালায় সভাপতিত্ব করেন তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের অতিরিক্ত সচিব রাশেদুল ইসলাম।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন অ্যাক্সেস টু ইনফরমেশনের প্রকল্প পরিচালক আব্দুল মান্নান, ভূমি সংস্কার বোর্ডের চেয়ারপারসন উম্মে হাসনা, বেসিস সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবীরসহ আরও অনেকেই।  

ইএইচ/ ডিসে ২৯/ ২০১৯/ ২০৪৫

*

*

আরও পড়ুন