Techno Header Top

তোশিবা এটি১০০ : কনফিগারেশন ও পারফরম্যান্সের চেয়ে দামি ট্যাব

TOSHIBA-AT100-techshohor
Evaly in News page (Banner-2)

শাহরিয়ার হৃদয়, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : নোটবুক নির্মাতা হিসেবে তোশিবা যতটা পরিচিত, ট্যাব নির্মাতা হিসেবে ততোটা নয়। তারপরও অল্প সময়ের মধ্যে ব্যতিক্রম কিছু ট্যাব বাজারে এনে কোম্পানিটি অনেক ব্যবহারকারীর নজর কেড়েছে।

ডিজাইনের দিক দিয়ে খুব নতুন কিছু না হলেও ট্যাবে এনভিডিয়া প্রসেসর, এসএসডি ইত্যাদি ব্যবহার করে নতুনত্ব আনার চেষ্টা করেছে জাপানি কোম্পানিটি। এমন একটি ট্যাব তোশিবা এটি-১০০।

ডিজাইন
এর বর্গাকার ডিজাইনের সাথে আইপ্যাডের বেশ আছে। তবে এটি সম্পূর্ণ প্লাস্টিকে তৈরি হওয়ায় গড়ন খুব সলিড মনে হবে না। এ ছাড়া স্ক্রিনের বেজেলগুলো বেশ পুরু, তাই কিছু সৌন্দর্যহানি হয়েছে। এর পুরুত্ব ১৫.৮ মিলিমিটার, ওজন ৭৬৫ গ্রাম।

আরও পড়ুন : ট্যাবের খবরাখবর : বাজেট যখন ২০ হাজার টাকা

TOSHIBA-AT100-techshohor

 

ডিসপ্লে
এতে আছে ১০.১ ইঞ্চি তোশিবা ট্রুব্রাইট এলইডি ডিসপ্লে। ডিসপ্লের রেজ্যুলুশন ১২৮০*৮০০ পিক্সেল। স্ক্রিনে ছবির মান চমৎকার আসবে, কিন্তু ব্রাইটনেস কিছুটা কম থাকায় আউটডোরে ট্যাবটি ব্যবহার করতে সমস্যা হতে পারে।

কানেক্টিভিটি
এর কানেক্টিভিটি ফিচারের মধ্যে আছে ওয়াই-ফাই, ব্লুটুথ। পোর্টের মধ্যে আছে এইচডিএমআই, একটি ইউএসবি ২.০ ও একটি মিনিইউএসবি। এছাড়া অ্যান্ড্রয়েডের বেসিক সেন্সরগুলো রয়েছে।

ক্যামেরা
এর সামনে ও পেছনে দুই পাশেই ক্যামেরা আছে। পেছনের মূল ক্যামেরাটি ৫ মেগাপিক্সেল, ফ্রন্ট ক্যামেরা ২ মেগাপিক্সেল। ফ্ল্যাশ নেই। ক্যামেরা জন্য খুব বেশি ফিচার নেই।

কনফিগারেশন
ট্যাবটির মূল আকর্ষণ এর এনভিডিয়া টেগ্রা ২৫০ ডুয়াল কোর প্রসেসর, যার ক্লক রেট ১.০ গিগাজার্জ। গ্রাফিক্স প্রসেসর এনভিডিয়া জিফোর্স ইউএলপি, র‍্যাম ১ জিবি।

এতে ১৬ জিবি সলিড স্টেট ড্রাইভ মেমরি হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে। বিল্ট-ইন কার্ড রিডার ৩২ জিবি পর্যন্ত সাপোর্ট করে।

এর ভার্চুয়াল কিবোর্ডটি যথেষ্ট উন্নত, তারপরও যারা নোটবুক হিসেবে ব্যবহার করতে চান, তারা টাচপ্যাডসহ তোশিবার এক্সটার্নাল কিবোর্ড লাগিয়ে নিতে পারেন।

পারফরম্যান্স
এটি ১০০ তে ডিফল্ট অপারেটিং হিসেবে কিছুটা পুরানো অপারেটিং সিস্টেম অ্যান্ড্রয়েড ৩.১ রয়েছে। ট্যাবলেটের জন্য বিশেষভাবে তৈরি অ্যান্ড্রয়েডের এ ভার্সন চমৎকার গতিতে রান করবে ট্যাবটিতে।

এনভিডিয়া প্রসেসরের ফলে গেইম পারফরম্যান্স বাজারের বেশিরভাগ চেয়ে উন্নত। হাই কোয়ালিটি মুভি উপভোগ করার পাশাপাশি ব্রাউজিং, মাল্টিটাস্কিং মসৃণভাবে করতে পারবেন।

এসএসডি থাকার কারণে এর মেমরি ড্রাইভ খুবই শক্তিশালী। তাই দীর্ঘদিন ব্যবহারেও এটির পারফরম্যান্সে ঘাটতি পড়ার কারণ নেই।

ব্যাটারি
এর শক্তিশালী ব্যাটারি সাধারণ ব্যবহারে প্রায় ৭ ঘণ্টা ব্যাকআপ দেবে।

দেশের বাজারে এর দাম ৩৬ হাজার ৫০০ টাকা।

এক নজরে ভালো
– চমৎকার পারফরম্যান্স
– এসএসডি মেমরি ড্রাইভ, দুই পাশে ক্যামেরা

এক নজরে খারাপ
– পুরাতন ওএস
– কনফিগারেশন ও পারফরম্যান্সের তুলনায় দাম বেশি

*

*

আরও পড়ুন