কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা ফেইসবুক ব্যবহারকারীদের বিভক্ত করেছে

Cambridge-Analytica-Facebook-techshohor
Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ফেইসবুকের তথ্য নিয়ে কেমব্রিজ অ্যানালিটিকার কেলেঙ্কারির ঘটনার ১৮ মাস পার হয়েছে।

এতো পরে হলেও শেষ পর্যন্ত কেমব্রিজ অ্যানালিটিকার তথ্য কেলেঙ্কারীর ব্যাপারে চূড়ান্ত রায় ঘোষণা করেছে যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল ট্রেড কমিশন (এফটিপি)।

রায় অনুযায়ী, কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা তথ্য সংগ্রহের সিস্টেমগুলোর মাধ্যমে ফেইসবুক ব্যবহারকারীদের সঙ্গে প্রতারণা করেছে।

এফটিসি এজন্য পরামর্শক প্রতিষ্ঠান কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা, তার সিইও আলেকজান্ডার নিক্স এবং অ্যাপ ডেভেলপার প্রতিষ্ঠান আলেকসান্দ্র কোগান মিলে ব্যক্তিত্ব দেখার অ্যাপের মাধ্যমে ফেইসবুক ব্যবহারকারীর তথ্য সংগ্রহ করেছে। 

খবরটি প্রথম প্রকাশ পাবার পর কিছুদিনের মধ্যেই দেউলিয়া হয়ে যাবার আবেদন করে প্রতিষ্ঠানটি। এফটিসি তাদের রায়ে বলেছে, কোনো এজেন্সির কারণে পুরো কোম্পানিকে দায়ী করা সমীচীন হবে না। অবশ্য রায় নিয়ে কোনো প্রতিক্রিয়া দেখায়নি ফেইসবুক বা কেমব্রিজ অ্যানালিটিকার কেউই।  

অবশ্য এফটিসি তাদের রায়ে বলেছে, কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা ফেইসবুক ব্যবহারকারীদের যে তথ্য সংগ্রহ করেছিল সেগুলো সংরক্ষণ করা যাবে না। এমনকি সেগুলো মুছে ফেলতে হবে। 

ফেইসবুকের বিরুদ্ধে অভিযোগ, ব্যবহারকারীর তথ্য সংগ্রহের জন্য কেমব্রিজ অ্যানালিটিকাকে সেসময় একটি অ্যাপ ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছিল। ওই অ্যাপের মাধ্যমে প্রায় পাঁচ কোটি ব্যবহারকারীর তথ্য সংগ্রহ করে। এরপর তথ্যগুলো ২০১৬ সালে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডোনাল্ড ট্রাম্পের পক্ষে প্রচারণায় ব্যবহার করা হয়।

গোপনে এসব তথ্য হাতিয়ে নিয়ে তা ব্যবহার করে প্রতিষ্ঠানটি মার্কিন নির্বাচন নীতি ভঙ্গ করে।

কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা কেলেঙ্কারির সূত্র ধরে ২০১৮ সালের মার্চে ফেইসবুকের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করে এফটিসি। এ ঘটনাটি ‘কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা কেলেঙ্কারি’ হিসেবে পরিচিতি লাভ করে।

ফেইসবুক তাদের কোটি কোটি ব্যবহারকারীকে প্রতিশ্রুতিও দিয়েছিল তাদের ব্যক্তিগত তথ্য কোথায় কিভাবে শেয়ার করা হবে সেটি তাদের নিয়ন্ত্রণেই থাকবে। কিন্তু ফেইসবুক তা করতে পারেনি।

পিএন/ ইএইচ/ ডিসে ০৮/ ২০১৯/ ১৮০০

*

*

আরও পড়ুন