বাড়ছে 'মোবাইল ফোন ইনজুরি'

Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : কোনো দিনই কোনো সুস্থ মস্তিষ্কের ব্যক্তি বই পড়তে পড়তে রাস্তায় হাঁটবেন না। কিন্তু মোবাইলের স্ক্রিনে আর্টিকেল বা সোশ্যাল মিডিয়ার পোস্ট পড়তে পড়তে দিব্যি আমরা হেঁটে যাই। এই বদঅভ্যাস কম বেশি সবারই আছে।

শুধু অভ্যাস নয়, মোবাইল ফোন আমাদের রোগের ধরণও পাল্টে দিয়েছে। অত্যধিক পরিমাণে ফোন ব্যবহারের ফলে বাড়ছে ঘাড়, চোখ, কান ও মাথাব্যথা। ২০ বছর আগেও ঘাড়, চোখ, কান ও মাথাব্যথার মতো সমস্যাগুলো এতো প্রকট ছিল না।

ব্যথা বাড়ানোর পাশাপাশি মোবাইল ফোন দুর্ঘটনার হারও বাড়িয়ে দিয়েছে।

১৯৯৮ সাল থেকে ২০১৭ সালের তথ্য পর্যালোচনা করে ‌একটি গবেষণাপত্র লিখেছেন যুক্তরাষ্ট্রের একদল গবেষক। তাদের গবেষণাপত্রটির নাম ‘হেড অ্যান্ড নেক ইনজুরিস অ্যাসোসিয়েটেড উইথ সেল ফোন ইউজ’। গবেষণায় দেখা গেছে, গাড়ি চালানোর সময় ও হাঁটার সময় ফোনে ম্যাসেজ করার ফলে অধিকাংশ দুর্ঘটনা ঘটেছে।

এসব দুর্ঘটনার শিকার হয়েছেন ১৩ থেকে ২৯ বছর বয়সী ব্যক্তিরা। দুর্ঘটনায় মুখে ও মাথায় আঘাত পেয়ে কেঁটে যাওয়ার হার বেশি। সামান্য এসব কাঁটা-ছেঁড়াকে বড় করে দেখার কিছু নেই। তবে এগুলোর প্রভাব দীর্ঘমেয়াদী। কারণ মুখে স্থায়ীভাবে কাটা দাগ তৈরি হলে তাতে উদ্বেগ বাড়ে। আত্মবিশ্বাসও কমে যায়।

মোবাইল ফোনের কারণে সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যুর হারও বেড়েছে। যুক্তরাষ্ট্রেে ন্যাশনাল সেইফটি কাউন্সিল জানিয়ছে, ২০১৮ সালে মোবাইল ব্যবহারের কারণে সড়ক দুর্ঘনায় নিহত হয়েছেন ২ হাজার ৮৪১ জন।

সিএনএন অবলম্বনে এজেড/ ডিসেম্বর ০৭/২০১৯/১৩১৬

*

*

আরও পড়ুন