vivo Y16 Project

কতোটা শক্তিশালী স্ন্যাপড্রাগন ৮৬৫?

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : হাওয়াইয়ে কোয়ালকমের বার্ষিক সম্মেলনের প্রথম দিন দেখা মিলেছে নতুন ফ্ল্যাগশিপ প্রসেসর স্ন্যাপড্রাগন ৮৬৫ এর। দ্বিতীয় দিনে প্রসেসরটির ব্যাপারে বিস্তারিত জানিয়েছে কোয়ালকম।

ফ্ল্যাগশিপ প্রসেসরটিতে আছে কায়রো ৫৮৫ সিপিইউ, অ্যাড্রিনো ৬৫০ জিপিইউ, স্পেক্ট্রা ৪৮০ আইএসপি ।

সিপিইউয়ের গতি হবে ২ দশমিক ৮৪ গিগাহার্ট। এই গতির ফলে আগের প্রসেসর স্ন্যাপড্রাগন ৮৫৫ এর চেয়ে সিপিইউর পারফরমেন্স ২৫ শতাংশ পর্যন্ত বাড়বে। উন্নত জিপিইউর কারণে গ্রাফিক্স রেন্ডার হবে ২৫ শতাংশ দ্রুতগতিতে।  এছাড়াও, ডিসপ্লের রিফ্রেশ রেট ১৪৪ হার্জ পর্যন্ত সাপোর্ট করবে অ্যাড্রিনো ৬৫০ জিপিইউ।

Techshohor Youtube

স্পেক্ট্রা ৪৮০ ইমেজ সিগনাল প্রসেসর (আইএসপি) প্রতি সেকেন্ডে প্রসেস করতে পারবে ২ গিগাপিক্সেল। স্পেক্ট্রা ৪৮০ আইএসপিতে আছে ডেডিকেটেড নয়েজ রিডাকশন হার্ডওয়্যার। তাই কম আলোতেও নয়েজ ছাড়া ছবি তোলা যাবে। প্রসেসরটির সাহায্যে ভিডিও ধারণ করা যাবে ৮কে রেজুলেশনে। ব্যবহার করা যাবে ২০০ মেগাপিক্সেলের সেন্সর।

ফাইভজি ব্যবহারের জন্য স্ন্যাপড্রাগন ৮৬৫ এর পাশাপাশি স্মার্টফোনে থাকতে হবে এক্স৫৫ মডেম। এই মডেম ফাইভজি ও ফোরজি সাপোর্ট করবে। ফাইভজি নেটওয়ার্কে সর্বোচ্চ ডাউনলোড স্পিড হবে ৭.৫ গিগাবিট। ফোরজি নেটওয়ার্কে সর্বোচ্চ ডাউনলোড স্পিড হবে ২.৫ গিগাবিট।

ধারণা করা হচ্ছে, ২০২০ সালের ফ্ল্যাগশিপ ফোন যেমন গ্যালাক্সি এ১১, ওয়ানপ্লাস ৮, পিক্সেল ৫, গ্যালাক্সি নোট ১১-তে এই প্রসেসর দেখা যাবে।

ইউবারগিজমো অবলম্বনে এজেড/ ডিসেম্বর ০৫/২০১৯/ ১২০৫

১ টি মতামত

  1. Shout Me Crunch said:

    নিঃসন্দেহে মাথা নষ্ট করার মত, কিন্তু কম দামে এটাকে পাওয়া অনেক সময়ের ব্যাপার আর একইসাথে 5G আমাদের দেশে এখনো চালু হয়নি সুতরাং ফাইভ-জি কতটা কাজে লাগবে তাতেও প্রশ্ন থেকে যায়!

*

*

আরও পড়ুন

vivo Y16 Project