ই-গভর্নমেন্ট মাস্টারপ্ল্যান নিয়ে কর্মশালা

Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের অধীন বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলে ‘ডিজিটাল বাংলাদেশের জন্য ই-গভর্নমেন্ট মাস্টারপ্ল্যান ’ শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ই-গভর্নমেন্ট মাস্টারপ্ল্যান রিপোর্টের সুপারিশ এবং বাস্তবায়ন কৌশল সংশ্লিষ্ট পক্ষরে সঙ্গে আলোচনা করতে এ কর্মশালার আয়োজন করা হয়।

চলতি বছরের অক্টোবরে ডিজিটাল প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় আনুষ্ঠানিকভাবে ই-গভর্নমেন্ট মাস্টারপ্ল্যান রিপোর্ট প্রকাশ করেন।

কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের সিনিয়র সচিব এনএম জিয়াউল আলম।

বিসিসির নির্বাহী পরিচালক পার্থপ্রতিম দেব এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন কোইকার কান্ট্রি ডিরেক্টর জো হনে-জু, তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের অতিরিক্ত সচিব (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) মো. মামুন-আল-রশীদ এবং ডিজিটাল বাংলাদেশের জন্য ই-গভর্নমেন্ট মাস্টার প্ল্যানের প্রকল্প পরিচালক মো. মনির হোসেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে জিয়াউল আলম বলেন, দেশে শক্তিশালী একটি সরকারি ই-গভর্নমেন্ট ইকো-সিস্টেম প্রতিষ্ঠায় ডিজিটাল বাংলাদেশের জন্য ই-গভর্নমেন্ট মাস্টার প্ল্যান অত্যন্ত কার্যকরী এবং টেকসই ভূমিকা পালন করবে। এটি সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, বিভাগ, সংস্থার আইসিটি সম্পর্কিত উদ্যোগ গ্রহণ ও রপকল্প ২০২১ বাস্তবায়নে কার্যকর ভূমিকা রাখবে।

তিনি বলেন, জাতিসংঘের ই-গভর্নমেন্ট জরিপ-২০১৮ অনুসারে বিশ্বের ১৯৩টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ১১৫তম।

প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় ২০২১ সালের মধে জাতিসংঘের ই-গভর্নমেন্ট র‌্যাংকিং পঞ্চাশে উন্নীত করার লক্ষ্য নির্ধারণ করেছেন।

২০০৩ সালে মাত্র ৪৫টি দেশে ওয়ান স্টর্প প্লাটর্ফম ছিল এবং ২০১৬ সালে এটি ৯০ এ উন্নীত হয়।

বর্তমানে ৪০ শতাংশের বেশি সেবা ডিজিটাল পদ্ধতিতে চালু রয়েছে। ২০২১ সাল নাগাদ ৯০ শতাংশ সেবা অনলাইনে আনার কার্যক্রম চলমান রয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

সভাপতির বক্তব্যে পার্থপ্রতিম দেব বলেন, সরকারের লক্ষ্য তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে নাগরিক সেবাসমূহ জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেওয়া। ই-গভর্নমেন্ট মাস্টার প্ল্যান পূর্ণরূপে বাস্তবায়ন হলে সকল নাগরিক সেবা, সরকারি ব্যবস্থাপনা ও পদ্ধতি আরও ফলপ্রসু হবে।

ইএইচ/ নভে ২২/ ২০১৯/ ১২০৪

*

*

আরও পড়ুন