চার দিন ইন্টারনেট ছাড়া কেমনে চলছে ইরান!

Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ইরানে গত শনিবার বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে ইন্টারনেট। চার দিন পার হলেও এখনো চালু হয়নি তা।

সরকার বিরোধী বিক্ষোভ ঠেকাতে ইন্টারনেট বন্ধ করে দিয়েছে দেশটির সরকার।

দেশটির আট কোটির বেশি মানুষ এখন ইন্টারনেট ছাড়াই দিন কাটাচ্ছে। বলতে গেলে দেশটির যোগাযোগ ব্যবস্থা একেবারে অচল হয়ে পড়েছে ইন্টারনেট বিহীন হয়ে পড়ায়।

দেশটির জনগণ জ্বালানি তেলের দাম বাড়ার পর অব্যাহত রেখেছে বিক্ষোভ। আর সেই বিক্ষোভ দমনের পথ হিসেবে ইন্টারনেট বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে বিষয়টিতে উদ্বেগ জানিয়েছে অনেক দেশ ও সংস্থা।

ইউনিভার্সিটি অফ সারের সাইবার-নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক অ্যালান উডওয়ার্ড বলেছেন, যদি ইন্টারনেটকে নিয়ন্ত্রণ করা যায় আপনি তাহলে অনেক কাজই নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন। কারণ, ইন্টারনেটে অনেক কিছু সেন্সর করা যায়।

দেশটিতে ইন্টারনেট বন্ধ করায় বাইরের দেশে থাকা ইরানিরাও তাদের স্বজনদের সঙ্গে যোগযোগ করতে পারছেন না।

দেশটিতে ইন্টারনেট একক কোনো সংস্থার হাতে না থাকায় তা বন্ধের কাজটি খুব কঠিন ছিল বলে জানিয়েছে অলাভজনক ইন্টারনেট পর্যবেক্ষক সংস্থা ‘নেটব্লকস’।

সংস্থাটি বলছে, দেশটিতে ইন্টারনেট  ব্যবহারে ট্রাফিক এখন নেমে এসেছে মাত্র পাঁচ শতাংশে।

প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান ওরাকল জানিয়েছে, তাদের অভিজ্ঞতায় ইরানে এটাই সবচেয়ে বড় ইন্টারনেট ব্ল্যাকআউট। এর আগে এতো বড় পরিসরে ইন্টারনেট বন্ধ করা হয়নি।

তবে সংবাদ মাধ্যম বিবিসি বলছে, দেশটি বেশ কয়েক বছর থেকেই ইন্ট্রানেট নেওয়ার্ক তৈরির কাজ করে এসেছে। এর ফলে সরকারি সব অফিসে একটি নেটওয়ার্কের আওতায় আছে। ফলে দেশের অভ্যন্তরে সরকারী কাজ করার ক্ষেত্রে কর্মকর্তারা ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারছেন।

নেটব্লকস জানিয়েছে, ইন্টারনেট ব্ল্যাকআউটের ফলে দেশটির অর্থনীতিতেও নেতিবাচক প্রভাব পড়ার করা বলেছে। দৈনিক অন্তত ছয় কোটি ডলারের ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে দেশটি।

ইএইচ/ নভে ২১/ ২০১৯/ ১৯৩৪

*

*

আরও পড়ুন