সরকারের আবেদনে ১০ পোস্ট মুছে দিয়েছে ফেইসবুক

Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : সরকারের আবেদনে চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে জুলাই পর্যন্ত ছয় মাসে বাংলাদেশ থেকে দুটি পেইজ ও আটটি পোস্ট মুছে দিয়েছে ফেইসবুক।

স্থানীয় আইন ও ফেইসবুকের নীতিমালা না মানায় পোস্টগুলো মুছে দিয়েছে ফেইসবুক কর্তৃপক্ষ।

এছাড়াও ফেইসবুকের কাছে ৯৫টি আবেদন করে ১২৩ অ্যাকাউন্ট সম্পর্কে তথ্য জানতে চেয়েছে সরকার। এর মধ্যে জরুরী অনুরোধ ছিল ৮০টি। 

এসব অনুরোধে ৪৩ শতাংশ ক্ষেত্রে সাড়া দিয়ে ফেইসবুক তথ্য সরবরাহ করেছে বলে জানিয়েছে। 

গত বুধবার সামাজিক মাধ্যম জায়ান্টটি তাদের চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে জুলাই পর্যন্ত ট্রান্সপারেন্সি রিপোর্ট প্রকাশ করেছে। সেই রিপোর্ট থেকেই সরকারের এমন তথ্য জানতে চাওয়া ও পাওয়ার বিষয়টি দেখা গেছে।  

গত জুলাই থেকে ডিসেম্বর সময়ে ফেইসবুকের কাছে বিভিন্ন দেশ থেকে মোট এক লাখ ২৮ হাজার ৬১৭টি । যার মধ্যে ফেইসবুক সরবরাহ করেছে ৭৬ দশমিক ৬ শতাংশ তথ্য। 

গত বছর একই সময়ে ফেইসবুকের কাছে তথ্য চাওয়ার পরিমাণ ছিল এক লাখ ৩ হাজার ৮১৫টি। তার পর গত বছরের জুলাই থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত ফেইসবুকের কাছে বিভিন্ন দেশের সরকারের পক্ষ থেকে তথ্য চাওয়ার পরিমাণ ছিল এক লাখ ১০ হাজার ৬৩৪টি। 

বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে যে অনুরোধ করা হয়েছিল তার মধ্যে ১৫টি ছিল লিগ্যাল বা আইনি জটিলতা সংক্রান্ত অনুরোধ। 

রিপোর্ট থেকে জানা যায়, সামাজিক মাধ্যম জায়ান্টটিকে ওই ছয় মাসের মধ্যে বাংলাদেশ সরকার ১১টি কনটেন্ট সরিয়ে নেওয়ার জন্য অনুরোধ করে। সেসব অনুরোধে সাড়া দিয়ে ফেইসবুক তাদের প্লাটফর্ম থেকে ১০টি কনটেন্ট মুছে দিয়েছে।

ফেইসবুক এসব কনটেন্ট মুছে দেবার কারণ হিসেবে বলেছে, স্থানীয় ডিজিটাল সিকিউরিটি আইনের ২৫ ধারা লঙ্ঘন, পেনাল কোডের ৫০৫ এবং ৫০৫ এ ধারাও লঙ্ঘন করেছে। সে কারণে বাংলাদেশ সরকারের অনুরোধে দুটি পেইজ এবং আটটি পোস্ট ফেইসবুক থেকে মুছে ফেলা হয়েছে। এই পেইজ ও পোস্টগুলো স্থানীয় আইনের লঙ্ঘন করে এবং যৌনতা সম্পর্কিত। 

এর আগে অবশ্য মাত্র চারবার বাংলাদেশ থেকে পোস্ট মুছে দিয়েছে ফেইসবুক। প্রথমবার ২০১৩ সালে জুলাই-ডিসেম্বর সময়ে তিনটি, ২০১৫ সালে জুলাই-ডিসেম্বরে চারটি, ২০১৬ সালের জানুয়ারি-জুলাই সময়ে দুটি এবং গত বছরের জুলাই-ডিসেম্বরে একটি পোস্ট মুছে দিয়েছে ফেইসবুক। 

ফেইসবুক বলছে, নানা কারণেই বিভিন্ন দেশের সরকার তাদের কাছ থেকে অ্যাকাউন্ট সম্পর্কিত, পোস্ট সম্পর্কিত নানান ধরনের তথ্য চেয়ে থাকে। ফেইসবুকও সেগুলো খুব সতর্কতার সঙ্গে গ্রহণ করে তাদের নীতিমালার সঙ্গে সাংঘর্ষিক না হলে তথ্য সরবরাহ করে থাকে। 

জানুয়ারি-জুলাই সময়ে ফেইসবুকের কাছে সবচেয়ে বেশি একক রাষ্ট্র হিসেবে তথ্য জানতে চেয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটি এই সময়ে ফেইসবুকের কাছে ৫০ হাজার ৭৪১ আবেদনে ৮২ হাজার ৪৬১ অ্যাকাউন্ট সম্পর্কে তথ্য জানতে চেয়েছে। 

ইএইচ/ নভে ১৫/ ২০১৯/ ১৩০০

*

*

আরও পড়ুন