প্রথম 'ভুলে' আলোচনায় উবার সিইও

Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : বিতর্কিত ভাবমূর্তি ও একের পর এক ভুলের কারণে ২০১৭ সালে পদত্যাগে বাধ্য হয়েছিলেন উবারের সহ প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও ট্রাভিস কালানিক।

তার প্রস্থানের পর উবারের পরিচালনা পর্ষদ নিয়োগ দিয়েছিল ইরানীয়ান আমেরিকান ব্যবসায়ী দারা খোশরুশাহীকে। দুই বছরের অধিক সময় ধরে তিনি বটবৃক্ষের মতো উবারকে আগলে রাখেন। কৌশলী হয়ে এড়িয়ে যান সব বিতর্ক।

কিন্তু এবার তাকে নিয়েও সমালোচনার ঝড় উঠলো। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি  জামাল খাশোগি হত্যাকাণ্ডকে ‘গুরুতর ভুল’ বলে মন্তব্য করেছেন। এছাড়াও, হত্যাকাণ্ডকে উবারের স্বয়ংক্রিয় চালিত গাড়ির দুর্ঘটনার সঙ্গে তুলনা করেছেন।

টিভি অনুষ্ঠান এক্সিওস অন এইচবিওর এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, সরকার (সৌদি আরব) এটাকে ভুল বলে উল্লেখ করেছে। আমরাও (উবার) স্বয়ংক্রিয় গাড়ির বিষয়ে ভুল করেছি, ড্রাইভিং বন্ধ রেখেছি। এখন সেই ভুল শোধরানোর চেষ্টা করছি। তাই যারা ভুল করে তাদেরকে কখনও ক্ষমা করা যাবে না তা নয়। অন্যেরা ভুলটাকে (হত্যাকাণ্ড) খুব বেশি বড় করে দেখছে।

ক্ষমার কথা বললেও সমালোচনার মুখে তাকেই ক্ষমা চাইতে হয়েছে। সোমবার এক টুইটে, তিনি লেখেন, খাশোগির সঙ্গে যা হয়েছে তার কোনো ক্ষমা নেই। এটা ভুলে যাওয়ার মতো কোনো ঘটনাও না। সাক্ষাৎকারের পরেই এক্সিওসের বিজনেস এডিটর ড্যান প্রিম্যাককে বলেছিলাম, এমন কিছু বলে ফেলেছি যাতে আমি নিজেই বিশ্বাস করি না। আমাদের বিনিয়োগকারীরা জানেন এ বিষয়ে আমার দৃষ্টিভঙ্গি কেমন। আমি ক্ষমা প্রার্থী। এক্সিওসে যা বলেছি তা স্পষ্ট ছিলো না।

তবে ক্ষমা চাইলেও সমালোচকদের মন গলেনি। কারণ উবারের পঞ্চম বৃহত্তম বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান হলো পাবলিক ইনভেস্টমেন্ট ফান্ড। এর চেয়ারম্যান পদে রয়েছেন খোদ সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান। এছাড়াও, উবারে পাবলিক ইনভেস্টমেন্ট ফান্ডের বিনিয়োগ আছে ১৯০ কোটি ডলার। প্রতিষ্ঠানটির ম্যানেজিং ডিরেক্টর ইয়াসির আল রুমাইয়ান উবারের পরিচালনা পর্ষদেরও সদস্য।

গত বছর অক্টোবরে ইস্তাম্বুলের সৌদি কনস্যুলেটে ওয়াশিংটন পোস্টের কলাম লেখক জামাল খাশোগিকে হত্যা করা হয়। কথিত আছে, এ হত্যাকাণ্ডের নির্দেশ দেন সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান।

আরও পড়ুন

প্রতিশোধ নিতে বেজসের ফোন হ্যাক করে সৌদি সরকার

গ্যাজেটস ৩৬০ ডিগ্রি অবলম্বনে এজেড / নভেম্বর ১২/২০১৯/১৩৫০

*

*

আরও পড়ুন