ভাঙ্গুড়ার স্কুলে হল শিক্ষা ও প্রযুক্তি উৎসব

Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : পাবনার ভাঙ্গুড়ার জরিনা রহিম বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে শিক্ষা ও প্রযুক্তি উৎসব। 

স্কুলটিতে জড়ো হতে শুরু করেন ভাঙ্গুড়ার ১৯টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। প্রত্যেকর চোখে মুখে এক চাপা উত্তেজনা। ওই অঞ্চলে এমন উৎসব এটাই প্রথম।

বুধবার সকালে ১৯টি স্কুলের চার শতাধিক শিক্ষার্থীদেরকে সঙ্গে নিয়ে জাতীয় সংগীতের মধ্য দিয়ে উৎসবের শুরু হয়। এ সময় জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন জরিনা রহিম বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি প্রকৌশলী ড.মাসুদ মোহাম্মদ জাহিদ হাসান এবং প্রধান শিক্ষক মো. ফারুক হোসেন।

উৎসবে উপস্থিত হয়ে জেলা শিক্ষা অফিসার এস এম মোসলেম উদ্দিন বলেন ‘আরও বেশি করে এমন আয়োজনের মাধ্যমে ভাঙ্গুড়ার শিক্ষার্থীদের উৎসাহিত করা হবে।’ 

শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে শুরু  হয় গণিত অলিম্পিয়াড প্রতিযোগিতা, বিজ্ঞান কুইজ প্রতিযোগিতা ও বিতর্ক প্রতিযোগিতা। এর পাশাপাশি উৎসবে উপস্থিত সবার জন্য জরিনা রাহিম বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের বিশেষ আকর্ষণ রোবটিক্সের প্রদর্শনী। তারা উপস্থিত সবাইকে তাদের লাইন ফলোয়ার রোবট চালিয়ে দেখান এবং দর্শনার্থীদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন।

ওই স্কুলের শিক্ষার্থীরাই গত মাসে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত ২য় বাংলাদেশ রোবট অলিম্পিয়াডের জাতীয় পর্বে অংশ নিয়ে তাদের মেধার স্বাক্ষর রাখেন।

এর বাইরে উৎসবের নিবন্ধিত স্কুলগুলোর গণিত ও বিজ্ঞান শিক্ষকদের নিয়ে শুরু হয় বিশেষ শিক্ষক কর্মশালা। স্কুল মাঠের এক প্রান্তে জরিনা রহিম বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা বিজ্ঞান নিয়ে তৈরী করা পোস্টার  প্রদর্শন করে। এবং এই বিষয়ে বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেয়। 

বিকালে বিদ্যালয়ের উন্মুক্ত মঞ্চে শুরু হয় উৎসবে বিজয়ীদের ফলাফল ঘোষণা ও পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

শিক্ষা ও প্রযুক্তি উৎসবের আয়োজক বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্ক এবং ইন্টারনেট সোসাইটি, বাংলাদেশ চ্যাপ্টার।

সহযোগী হিসেবে ছিলেন কাজী আইটি লিমিটেড এবং কম্পিউটার সার্ভিসেস লিমিটেড।

সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন আম্বার আইটি, ভলেন্টিয়ারি অ্যাসোসিয়েশন ফর বাংলাদেশ, বাংলাদেশ বিজ্ঞান জনপ্রিয়করণ সমিতি, মাকসুদুল আলম বিজ্ঞানাগার, অন্যরকম বিজ্ঞান বাক্স এবং নাগরিক টেলিভিশন।

ইএইচ/ অক্টো ২৬/ ২০১৯/ ১৫৩৩

*

*

আরও পড়ুন