জিপি কত টাকা জমা দেবে জানতে চায় আদালত

Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : বকেয়া টাকা দেওয়ার বিষয়ে হাইকোর্টের স্থগিতাদেশ টিকিয়ে রাখতে নিরাপত্তা জামানত হিসেবে গ্রামীণফােনকে কিছু টাকা জমা দিতে হবে।

নিরীক্ষার ভিত্তিতে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের দাবি করা সাড়ে ১২ হাজার টাকার মধ্যে এখন অপারেটরটি কত টাকা জমা দিতে পারবে তা জানতে চেয়েছেন আপিল বিভাগ।

আগামী ৩১ অক্টোবরের মধ্যে তা অপারেটরটির আইনজীবীকে জানাতে বলেছে। বৃহস্পতিবার অডিট বিষয়ক রিটের শুনানিতে এ নির্দেশনা দেন আদালত।

হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ গত ১৭ অক্টোবর গ্রামীণফোনের কাছ থেকে দাবি করা মোট ১২ হাজার ৫৭৯ কোটি ৯৫ লাখ টাকা পাওনা আদায়ের ওপর দু’মাসের স্থগিতাদেশ দেন।

এর বিরুদ্ধে বিটিআরসির আবেদন বিষয়ে বৃহস্পতিবার শুনানিকালে দাবির অর্ধেক অর্থ পরিশোধ করতে বলেন আদালত। তবে শেষ পর্যন্ত আদালত জানতে চেয়েছেন, গ্রামীণফোন কত টাকা দিতে পারবে।

টেকশহর ডটকমকে এ তথ্য জানিয়েছেন গ্রামীণফোনের আইনজীবী ব্যারিস্টার তামিন হুসাইন শাওন। তিনি আরও জানান, আদালতকে তারা জানিয়েছেন বিটিআরসি অপারেটরটির কাছ থেকে কোনো টাকাই পাবে না। তাই জামানত রাখার দাবি কিভাবে আসে?

এ বিষয়ে আদালত জানিয়েছেন, শেষ পর্যন্ত গ্রামীণফোনের কাছে বিটিআরসি কোনো টাকা না পেলে জমা করা টাকা ফেরত দেওয়া হবে।

শাওন জানান, এখন গ্রামীনফোনের সঙ্গে আলাপ করে তারা পরবর্তী করণীয় ঠিক করবেন।

এদিকে অডিটের মাধ্যমে বিটিআরসির দাবি করা পাওনার বিষয়ে গত সোমবারও বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়।

সেখানে চূড়ান্ত কোনো সিদ্ধান্ত না হলেও কিছু টাকা জামানত দিয়ে হলেও বিটিআরসি’র করা অডিটের প্রতিবেদন যাচায়ের কাজ শুরু হতে পারে বলে আলোচনা হয়েছে।

এ বিষয়ে একটি কমিটি করে হিসেবটি পর্যালোচনা হতে পারে বলে জানিয়েছে সূত্র।

অন্যদিকে ওই একই সময়ে করা রবির অডিটে ৮৬৭ কোটি ২৩ লাখ টাকা পাওনা দাবি করেছে কমিশন।

এই দাবি আদায়ে বিটিআরসি প্রথমে দুই অপারেটরের ব্যান্ডইউথ ক্যাপাসিটি ব্লক করা পরে যে কোনো ধরণের সেবা বা আমাদানির অনুমোদনও বন্ধ করে দেয়।

সব শেষে লাইসেন্স বাতিল বিষয়ে কারণ দর্শানো নোটিশ ইস্যুর পর প্রশাসক নিয়োগের দিকে এগিয়ে যায় কমিশন।

জেডএ/আরআর/২৪ অক্টােবর/২০১৯/১৩.৩০

*

*

আরও পড়ুন