রোবোটিক্স এআই মাইক্রোপ্রসেসর আইওটিতে গুরুত্ব জয়ের

Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ভবিষ্যত প্রযুক্তিতে স্বনির্ভর হতে দেশে রোবোটিক্স, আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স(এআই), ইন্টারনেট অব থিংস (আইওটি) ও  মাইক্রোপ্রসেসর ডিজাইনের মতো বিষয়গুলোতে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে।

মঙ্গলবার রাজধানীর হোটেল র‌্যাডিসনে আওয়ামী লীগের গবেষণা সংস্থা সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশন (সিআরআই) আয়োজিত ‘ইয়ং বাংলা উইথ সজীব ওয়াজেদ’  শীর্ষক অনুষ্ঠানে ‘ডিজিটাল ফিউচার অন ইয়ুথ ডেভেলপমেন্ট’ সেশনে এসব তথ্য জানান প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়।

প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার শাহ আলী ফরহাদ এবং সিআরআইয়ের সমন্বয়ক তন্ময় আহমেদ এই অনুষ্ঠান পরিচালনা ও সঞ্চালনা করেন।

অনুষ্ঠানে তরুণদের প্রশ্নের উত্তরে জয় জানান, এবার রোবোটিক্স, আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স, ইন্টারনেট অব থিংসের ওপর স্পেশালি গুরুত্ব দেয়া হয়েছে। এ বিষয়গুলোতে প্রশিক্ষণ ও রিসার্চ ফ্যাসিলিটি করে দিলে এক্সপার্টিজের দিক থেকে বাংলাদেশ অন্য দেশ থেকে এগিয়ে যাবে। এসব বিষয় নতুন, খুব বেশি বিশেষজ্ঞ নেই। নিজেদের উদ্যোগে রিসার্চ করলে এসব সেক্টরে দেশের সম্ভাবনা রয়েছে।

সরকারের তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের এলআইসিটি প্রকল্পে এই বিষয়গুলোতে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করার কথা উল্লেখ করে জয় বলেন, এই উদ্যোগ বাংলাদেশের তরুণরা যেন সর্বাধুনিক প্রযুক্তিতে বিশেষায়িত জ্ঞান অর্জন করতে পারেন সেজন্য।

প্রযুক্তির দিক থেকে স্বনির্ভর হতে এআই, রোবটিক্স, মাইক্রোপ্রসেসর ডিজাইনে ফোকাস করা হয়েছে। এটি দীর্ঘমেয়াদে কাজে আসবে’ বলছিলেন জয়।

ঢাকার বাইরে আরও বেশি করে তথ্যপ্রযুক্তি খাতের প্রশিক্ষণ করাতে চান তিনি। সেইসঙ্গে তরুণদের দক্ষ আরও বেশি বরাদ্দের কথাও জানান জয়।

‘দেখেন আবারও সেই বিসিএসের প্রশ্নে চলে যাই। সরকারি চাকরি, বিসিএসে চাকরি কিন্তু বছরে চার থেকে পাঁচ হাজার। মাত্র, সামান্য। কিন্তু এই যে প্রতি বছর হাজার হাজার তরুণ স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডিগ্রি নিয়ে আসছে তাদের কিন্তু বেশিরভাগের সরকারি চাকরিতে সুযোগ, সম্ভাবনাই নাই। কারণ সরকারি চাকরি মাত্র পাঁচ হাজার’ অনুষ্ঠানে বক্তব্যে বলছিলেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি উপদেষ্টা।

তিনি বলেন, শুধু চাকরির দিকে নজর দেবেন না। আমাদের অর্থনীতি বাড়ছে। উদ্যোক্তা হন, নিজের পায়ে দাঁড়ান, সরকার বা কারও উপর নির্ভরশীল হতে হবে না।

তরুণদের নিজেদের কোম্পানি করার আহবান জানিয়ে জয় বলেন, বাণিজ্য করলে দেশের অর্থনীতির লাভ, অন্যদের কর্মসংস্থান করতে পারবেন।

এডি/২০১৯/অক্টো২২/২০০০

*

*

আরও পড়ুন