যাত্রী নিয়ে চাঁদে ও মঙ্গলে যাবে ইলন মাস্কের রকেট

rocket-techshohor
Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : মহাকাশযান নির্মাতা কোম্পানি স্পেস এক্সের সিইও ইলন মাস্ক আগামী প্রজন্মের একটি রকেটের প্রোটোটাইপ (ডামি) উন্মোচন করেছেন।

টেক্সাসের বোকা চিকা সমুদ্র সৈকতে রকেটটি সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য দেন ইলন মাস্ক। তিনি জানান, স্টেইনলেস স্টিলের তৈরি রকেটটির নাম এমকে১ স্টারশিপ। এটি একসঙ্গে ১০০ মানুষকে নিয়ে চাঁদ ও মঙ্গল গ্রহে যেতে পারবে। আগামী ছয় মাসের মধ্যেই কক্ষপথের উদ্দেশে যাত্রা করবে স্টারশিপ। এটি ৬৫ হাজার ফিট উঁচুতে উড়তে পরবে। টেক অফের এক বা দুই মাস পর পৃথিবীতে ফিরে আসবে।

স্টারশিপটি ৫০ মিটার উঁচু। এর নিচে আছে অত্যাধুনিক তিনটি র‍্যাপ্টর ইঞ্জিন। তবে মহাকাশে যাত্রা করার সময় এতে থাকবে ছয়টি র‍্যাপ্টর। উপরে আর নিচে থাকবে চারটি পাখা।

ইলন মাস্ক আরও জানান, কার্বন ফাইবার দিয়ে স্টারশিপটির বডি তৈরির পরিকল্পনা ছিলো তার। কিন্তু এতে খরচ অনেক বেড়ে যেতো। প্রতি টন কার্বন ফাইবারের দাম পড়তো ১ লাখ ৩০ হাজার ডলার। তাই এর বদলে স্টেইনলেস স্টিল ব্যবহার করা হয়। প্রতি টন স্টিলের জন্য তাদের খরচ হয়েছে আড়াই হাজার ডলার। স্টারশিপটিতে তাপ নিরোধী গ্লাস টাইলসও বসানো হয়েছে। ফলে কঠিন পরিবেশেও স্টারশিপটির কোনো ক্ষতি হবে না।

mk4-techshohor

অনুষ্ঠানে সুপার হেভি বুস্টার নামেরও একটি রকেট সম্পর্কে ধারণা দেন ইলন মাস্ক। দ্রুতগতির এই রকেটের ওজন হবে ৩ হাজার ৩৩০ টন।

এটি ৩৭টি পর্যন্ত র‍্যাপ্টর ইঞ্জিন সর্মথন করবে। সাধারণত একটি রকেটের জন্য ২৪ থেকে ৩১টি র‍্যাপ্টের ইঞ্জিনই যথেষ্ট। কিন্তু হঠাৎ করে কোনো ইঞ্জিন কাজ করা বন্ধ করে দিলে ব্যাকআপ হিসেবে বাকি র‍্যাপ্টরগুলো কাজ করবে।

বিবিসি ও দ্য ভার্জ অবলম্বনে এজেড/ সেপ্টেম্বর ৩০/২০১৯/১৩৩৬

আরও পড়ুন –

২০২৪ সালে মানুষকে চাঁদে পাঠাবেন বেজস

ইলন মাস্ক মঙ্গলে যাবেন

মহাকাশ মিশনের অপেক্ষায় সবচেয়ে বড় রকেট

*

*

আরও পড়ুন