অ্যাপে পৌঁছাবে ওষুধ

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : অ্যাপের মাধ্যমে অর্ডার করলে ৫৯ মিনিটের মধ্যে হাতে পৌঁছে যাবে ওষুধ।

‘গোমেড কিট’ নামের এই অ্যাপটি সোমবার আনুষ্ঠানিকভাবে কার্যক্রম শুরু করেছে।

অনলাইনভিত্তিক ওষুধ ডেলিভারি প্ল্যাটফর্ম ওয়েবসাইটেও রয়েছে। সেখান হতেও এমন সেবা পাওয়া যাবে।

অ্যাপটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, এখন টেলি মেডিসিনের সময়। এ ধরনের উদ্যোগ স্বাস্থ্যখাতে আমূল পরিবর্তন আনবে। শিক্ষার সাথে ইন্টারনেটকে জুড়ে দিলে দারুণ কিছু হয়। যার বাস্তব উদাহরণ গোমেড কিট।

‘এবারের বাজেটে প্রধানমন্ত্রী স্টার্টআপদের জন্য ১০০ কোটি টাকা বাজেট রেখেছে। এমন দেশীয় স্টার্টআপ যেন গ্লোবাল প্ল্যাটফর্মে পরিচিতি পেতে পারে তার জন্য আমাদের তরফ থেকে সার্বিক সহায়তা থাকবে’ উল্লেখ করেন মন্ত্রী।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ডিন অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলাম বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সোহানুর রাহমান ও সৌরভ আজমের এই উদ্যেগ ব্যস্ততম শহর ঢাকায় অনেকের উপকারে আসবে। জরুরি প্রয়োজন মেটাতে সবখাতেই এমন সেবা চালু করা প্রয়োজন। তথ্যপ্রযুক্তির যুগে এভাবেই একের পর এক উদ্ভাবনীতে দেশ এগিয়ে যাবে।

ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ই-ক্যাব) এর সভাপতি শমী কায়সার বলেন, আইসিটি ইকো সিস্টেমের মধ্যে সার্ভিস ডেলিভারি একটা বড় জায়গা। সেখানে গোমেড কিট একটা বড় ভূমিকা রাখবে । একই সাথে, আমাদের দেশে বিভিন্ন ধরনের রোগ নিয়ে এখন পর্যন্ত সেন্ট্রাল কোনো ডাটাবেজ নেই। এই প্ল্যাটফর্মটি তেমন একটি তথ্য ভাণ্ডার হিসেবেও সেবা দেবে।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন বেসিস পরিচালক দিদারুল আলম সানি, উইমেন অ্যান্ড ই – কমার্সের সভাপতি নাসিমা আক্তার নিশা

অনুষ্ঠানে গোমেড কিট সম্পর্কে জানানো হয়, ব্যস্ততম শহরে দ্রুত সময়ে ওষুধ পৌঁছে দেওয়া এবং প্রেসক্রিপশনবিহীন ওষুধ বিক্রির বিপরীতে প্রেসক্রিপশন দিয়ে ওষুধ কেনার সচেতনতার উদ্দেশ্য নিয়ে তৈরি করা হয় প্ল্যাটফর্মটি। সোহানুর রহমান এবং সৌরভ আজম নামের দুই তরুণ উদ্যোক্তা গড়ে তোলেন গোমেড কিট।

বর্তমানে শুধু ঢাকা শহরে ২৪ ঘণ্টা কার্যক্রম পরিচালনা করছে গোমেড কিট। উদ্যোক্তারা জানান, এটিকে সারা দেশে ছড়িয়ে দিতে তারা কাজ করছেন।

অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএসে Gomedkit অ্যাপটি ডাউনলোড করা যাবে। এছাড়া গোমেড কিটের সেবা সংক্রান্ত যেকোনো প্রয়োজনে হটলাইন ০১৮৮৫০৯২৬০৫ নম্বরে কল করতে পারবেন গ্রাহকরা।

এডি/২০১৯/সেপ্টেম্বর১৬/০১১০

আরও পড়ুন –

হৃদরোগের চিকিৎসায় হার্ট ফাউন্ডেশনের ‘ই-হার্ট’ অ্যাপ

*

*

আরও পড়ুন