যে সব ফিচার ছাড়াই এসেছে আইফোন ১১

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : দামে ও মানে আইফোন সব সময়ই অনন্য।

তবে জনপ্রিয় ফিচার যুক্ত করার ক্ষেত্রে বরাবরই বিকল্প পথে হাঁটেন আইফোন নির্মাতারা। যেমন অন্যান্য সব ব্র্যান্ডের ফোনে হেডফোন জ্যাক থাকলেও আইফোনে কখনও হেডফোন জ্যাকের দেখা মেলে না। তবে এবার শুধু হেডফোন জ্যাক নয় বাদ পড়েছে জনপ্রিয় ৫ ফিচার।

চলুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক কী কী ফিচার ছাড়া এসেছে আইফোন ১১।

ইউএসবি-সি পোর্ট

আজকালকার সব অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসেই আছে ইউএসবি-সি পোর্ট। কিন্তু আইফোন ১১ এর জন্য অ্যাপল দিয়েছে লাইটেনিং পোর্ট। ফলে চাইলেও আইপ্যাড ও ম্যাকবুকের চার্জার দিয়ে আইফোন চার্জ করা যাবে না। আলাদা লাইটেনিং ক্যাবলের প্রয়োজন হবে।

তবে আইফোন ১১ প্রো ও ১১ প্রো ম্যাক্সে এই ঝামেলা নেই। দুটি ফোনের সঙ্গেই থাকবে ইউএসবি-সি টু লাইটেনিং কেবল। এই ক্যাবলের মাধ্যমে ম্যাকবুক থেকে আইফোনে চার্জ দেওয়া যাবে। অ্যাডাপ্টারের প্রয়োজন হবে না।

দ্রুত গতির স্মুথ স্ক্রিন

ওয়ান প্লাস, রেজার ও আসুসের ফোনে রিফ্রেশ রেট ৯০ হার্জ হলেও আইফোন ১১ এর রিফ্রেশ রেট ৬০ হার্জ। রিফ্রেশ রেট বেশি হলে ব্যাটারিও দ্রুত ক্ষয় হয়। এ কারণেই রিফ্রেশ রেট ৬০ হার্জ রাখা হয়েছে। রিফ্রেশ রেট যত বেশি হবে, সেকেন্ডে তত বেশি ফ্রেম ডিসপ্লেতে দেখা যাবে। এর ফলে গেইম খেলা যাবে স্মুথভাবে। ফিচারটি তাই গেইমারদের কাছে বেশি গুরুত্বপূর্ণ।

নচ ডিসপ্লে

আগর বছরের মতো এবারও অ্যাপল একই ডিজাইনের ডিসপ্লে এনেছে। চাইলে তারাও অন্যান্য কোম্পানির মতো পাঞ্চ হোল, ওয়াটার ড্রপ কিংবা ওভাল শেপ নচ আনতে পারতো। কিন্তু তারা জোর দিয়েছে ফেশিয়াল আইডির উপর।

ফেশিয়াল রিকগনিশনের জন্য বেশি পরিমাণে সেন্সর বসানোর প্রয়োজন হয়। সেন্সরগুলো ঢাকার জন্যই ডিসপ্লেতে ছোট আকারের নচ রাখা হয়নি।

ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর

ফেইস আইডি থাকার কারণেই ইন ডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর দেওয়া হয়নি। অ্যাপল পের মাধ্যমে কেনাকাটা করতে ফেইস আইডি ব্যবহার করা হয়। তাই নিরাপত্তা নিশ্চিতে এই প্রযুক্তি ইন-ডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্টের চেয়ে বেশি কার্যকর।

রিভার্স ওয়্যারলেস চার্জিং

স্যামসাং গ্যালাক্সি এস১০ ও নোট ১০ এ এই ফিচার দেখা গেছে। ওয়্যারলেস চার্জিং ডিভাইস যেমন স্মার্টওয়াচ বা এয়ারবাডস ফোনের উপর রেখে চার্জ করার প্রযুক্তিই রিভার্স ওয়্যারলেস চার্জিং প্রযুক্তি নামে পরিচিত। আইফোন ১১-তে ফিচারটি রাখা হয়নি।

গুজব আছে রিভার্স ওয়্যারলেস চার্জিং প্রযুক্তিটি আইফোন ১১ -তে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু তা ডিজেবল অবস্থায় আছে। পরবর্তীতে সফটওয়্যার আপডেটের মাধ্যমে ফিচারটি চালু করতে পারে অ্যাপল।

বিজনেস ইনসাইডার অবলম্বনে এজেড/ সেপ্টেম্বর ১৬/২০১৯/১৪১৮

আরও পড়ুন –

৩ আইফোনের দেখা মিললো

প্রত্যাশা ছাড়িয়েছে আইফোনের প্রি-অর্ডার

*

*

আরও পড়ুন