রোহিঙ্গাদের হাতে মোবাইল : সরেজমিন দেখতে যাচ্ছে বিটিআরসি

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : রোহিঙ্গাদের মোবাইল ফোন সেবা নিয়ে করণীয় ঠিক করার আগে সরেজমিনে বিষয়টি দেখতে ক্যাম্প এলাকায় যাচ্ছেন বিটিআরসির প্রতিনিধি দল।

সংশ্লিষ্ট আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদেরসহ বৃহস্পতিবার কক্সবাজারের টেকনাফ ও উখিয়ায় যাওয়ার কথা দলটির।

বিটিআরসির সর্বশেষ সিদ্ধান্তে কক্সবাজারের টেকনাফ ও উখিয়া এলাকার রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলোতে অনির্দিষ্টকালের জন্য দিন-রাতে সব সময় থ্রিজি ও ফোরজি মোবাইল ডেটা সেবা বন্ধ করা হয়েছে।

৯ সেপ্টেম্বর রাত ১০টার দিকে এ বিষয়ে মোবাইল অপারেটরগুলোকে ই-মেইলে নির্দেশনা দেয় বিটিআরসি।

এর আগের নির্দেশনা অনুসারে ওই দুই উপজেলায় শুধু রাতে থ্রিজি ও ফোরজি সেবা বন্ধ ছিল। তখন প্রতিদিন বিকাল পাঁচটা থেকে ভোর ছয়টা পর্যন্ত থ্রিজি ও ফোরজি সেবা বন্ধ রাখা হচ্ছিল।

বিটিআরসির পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত ওই দুই উপজেলার রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলোতে থ্রিজি ও ফোরজি সেবা বন্ধ থাকবে। সেখানে টুজি চলবে।

তবে উপজেলার অন্যান্য জায়গায় শুধু দিনে দ্রুত গতির এ দুই সেবা মিলবে।

এর আগে গত ১ সেপ্টেম্বর এক চিঠির মাধ্যমে বিটিআরসি রোহিঙ্গারা যাতে মোবাইল ফোন সেবা না পেতে পারে সে বিষয়ে অপারেটরেদেরকে নির্দেশনা পাঠায়।

পরে ২ সেপ্টেম্বর বিটিআরসির কার্যালয়ে মোবাইল অপারেটরদের প্রতিনিধিদের সঙ্গে এক বৈঠকে ১৩ ঘন্টার জন্য থ্রিজি ফোরজি বন্ধ রাখা এবং ওই এলাকায় নতুন করে সিম বিক্রি করার সিদ্ধান্ত হয়।

২০১৭ সালের আগস্ট থেকে বাংলাদেশে প্রায় ১০ লাখ রোহিঙ্গা এসেছে এবং তাদের অধিকাংশের হাতেই মোবাইল ফোন রয়েছে।

বিটিআরসি কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত ওই বৈঠকে অপারেটরদেরকে মিয়ানমার সীমান্তের ভিতরে চলে যাওয়া বাংলাদেশি মোবাইল টাওয়ারের নেটওয়ার্ক সীমীত করারও সিদ্ধান্ত হয়।

এডি/সেপ্টেম্বর০৯/২০১৯/২২৩০

আরও পড়ুন –

রোহিঙ্গাদের বায়োমেট্রিক নিবন্ধন শুরু

উখিয়া টেকনাফের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বন্ধ থ্রিজি ফোরজি

‘রোহিঙ্গা সিম’ প্রমাণের চ্যালেঞ্জে মোবাইল অপারেটররা

*

*

আরও পড়ুন