ফ্রিল্যান্সারদের পরিচয়পত্র দেবে সরকার

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : দেশের প্রায় ছয় লাখ ফ্রিল্যান্সারকে পরিচয়পত্র দিতে সরকার কাজ শুরু করছে বলে জানিয়েছেন তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

বৃহস্পতিবার তিনি আগারগাঁওয়ে বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা) মিলনায়তনে এক মতবিনিময় সভায় এই কথা জানান তিনি।

বক্তব্যের শুরুতে তিনি বলেন, আমাদের বসার যে উদ্দেশ্য, বাংলাদেশে প্রায় ছয় লাখ ফ্রিল্যান্সার রয়েছে। আমরা চাই তাদের সমস্যাগুলো চিহ্নিত করে তার সমাধানে ব্যবস্থা নিতে।

তিনি বলেন, এটা কিন্তু পৃথিবীর অন্য কোন দেশে ফ্রিল্যান্সারদের জন্য সহায়তা করার প্লাটফর্ম করেনি। বিশ্বে আমরাই প্রথম যারা ফ্রিল্যান্সারদের, ফ্রিল্যান্সারকে ধরা হয় স্বাধীন পেশা তাদের একটি ‘ফ্রি কার্ড’ চালু করবো। সেই কার্ডের নাম হবে ফ্রি কার্ড।

আমরা তথ্যপ্রযুক্তিতে রপ্তানি আয় যে ৫ বিলিয়ন ডলারের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছি তার একটা বড় ক্ষেত্র হচ্ছে ফ্রিল্যান্সিং এবং পুরো পৃথিবীতে এই মুহূর্তে ১.৫ ট্রিলিয়ন ডলারের মার্কেট যেটা আইটি ফ্রিল্যান্সার, বলেন পলক।

তিনি বলেন, বিশ্বে এখন বাংলাদেশের ফ্রিল্যান্সাররা প্রতিবছর প্রায় একশো মিলিয়ন ডলার বিদেশী রেমিটেন্স আয় করছে। এটাকে যদি আমরা ইনহ্যান্স করতে পারি, মানে যারা ফ্রিল্যান্সার আছেন তাদের দক্ষতা যোগ্যতা আরও বাড়াতে পারি এবং ফ্রিল্যান্সিংয়ে আরও চার-পাঁচ-ছয় লাখ মানুষ যোগ করতে পারি তাহলে এক বিলিয়ন করা অসম্ভব নয়।

আমরা বলছি ‘ফ্রি আইডি’ যাকে মুক্ত আইডি বলা যায়, আবার অনেকেই একে ফ্রিল্যান্সার আইডিও বলতে পারে। তবে এটি নিয়ে উপস্থিত যে কেউ যেকোন মতামত দিতে পারেন, বলেন পলক।

ওই কার্ডে ব্যক্তিগত তথ্য, মোবাইল নম্বরসহ বিশেষ কোড থাকবে যেগুলোর মাধ্যমে তাকে সনাক্ত করা সম্ভব হবে এবং ব্যাংক লোনসহ বিভিন্ন সুবিধা পাবেন বলেও জানান তিনি।

মতবিনিয়ম সভায় বাংলাদেশ ফ্রিল্যান্সার্স ডেভলপমেন্ট সোসাইটির (বিএফডিএস) প্রস্তুত করা একটি প্রেজেন্টেশন দেন তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান।

এছাড়াও সভায় বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা, বিএফডিএসের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

ইএইচ/ সেপ্টে ০৫/ ২০১৯/ ২০০০

*

*

আরও পড়ুন