টু থেকে ফোরজি সব সেবা এক লাইসেন্সে

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : প্রতিটি মোবাইল ফোন অপারেটরের হাতে এখন টুজি, থ্রিজি ও ফোরজি সেবা দেওয়ার লাইসেন্স রয়েছে। এরই মধ্যে সামনে ফাইভজি আসছে।

অপারেটর ভেদে বর্তমানে লাইসেন্সের মেয়াদেও আছে ভিন্নতা। এক্ষেত্রে সমন্বয়ের সুবিধার জন্য বিদ্যমান তিন লাইসেন্সকে একত্রিত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি।

চার অপারেটরের ভিন্ন ভিন্ন লাইসেন্সকে নিয়ন্ত্রণ এবং এ সংক্রান্ত হিসাব রাখার কাজ সহজ করতে কমিশন এমন উদ্যোগ নিয়েছে। অপারেটরগুলাের জন্যও যা সুবিধাজনক হবে।

এমন প্রেক্ষাপটে চলতি বছরের শুরুতে বিদ্যমান সব লাইসেন্সকে একত্রিত করার সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)। এ ধারাবাহিকতায় অবশেষে এ সংক্রান্ত একটি নীতিমালার খসড়া তৈরি করেছে সংস্থাটি।

আগের এ সংক্রান্ত সব নীতিমালায় থাকা বিষয়গুলোকে সমন্বয় করে নতুন নীতিমালার খসড়ায় অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে। এ ক্ষেত্রে ফোরজির নীতিমালাকে ভিত্তি হিসেবে নিয়ে অন্যান্য লাইসেন্সের বিষয়গুলো এতে অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

খসড়া নীতিমালাটি রোববার বিটিআরসির ওয়েবসাইটে দেওয়া হয়েছে গণশুনানির জন্য। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কারো কোনো মতামত থাকলে সেটি কমিশনে পাঠানো যাবে ৩১ আগস্টের মধ্যে। এরপর সবার মতামত যাচাই-বাছাই করে সব লাইসেন্সকে একত্রিত করার নীতিমালা চূড়ান্ত করা হবে।

ইতিমধ্যে একবার নবায়ন করার পর টেলিটক বাদে বাকি অপারেটরগুলোর দ্বিতীয় প্রজন্মের (টুজি) লাইসেন্সের মেয়াদ শেষ হবে ২০২৬ সালে। তৃতীয় প্রজন্মের (থ্রিজি) লাইসেন্সের মেয়াদ আছে ২০২৮ পর্যন্ত। অন্যদিকে ফোরজি বা চতুর্থ প্রজন্মের লাইসেন্স দেওয়া হয়েছে ২০৩৩ সাল পর্যন্ত।

লাইসেন্স একীভূতিকরণের এ নীতিমালায়ও সব লাইসেন্সের মেয়াদ ২০৩৩ সাল পর্যন্ত দেওয়ার প্রস্তাব করা হয়েছে।

টুজি ও থ্রিজির মেয়াদ সাত বছর ও পাঁচ বছর বাড়ানোর সঙ্গে অবশ্য বাড়তি ফি নেওয়া হবে অপারেটরগুলোর কাছ থেকে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, লাইসেন্সগুলোর মেয়াদ এবং শর্ত এক করা হলে সেটির ভিত্তিতে অডিট করা, গ্রাহকদের কল ডিটেইলস রেকর্ড সংরক্ষণ বা কোয়ালিটি অব সার্ভিস সংক্রান্ত অভিযোগও সহজে সুরাহা করা যাবে।

অন্যদিকে অপারেটরগুলোরও বিনিয়োগের ক্ষেত্রে সিদ্ধান্ত নিতে সুবিধা হবে।

বিটিআরসির এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন অপারেটরগুলোর কর্মকর্তারা।

জেডএ/আরআর/২৭ আগস্ট/২০১৯/১৪১০

আরও পড়ুন –

সেবার প্রশ্নে বাতিল হতে পারে মোবাইল অপারেটরের লাইসেন্সও

*

*

আরও পড়ুন