Techno Header Top and Before feature image

ব্যাকগ্রাউন্ড প্রসেস কমিয়ে ফোনের গতি বাড়াবেন যেভাবে

Speed-Techshohor

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : স্মার্টফোনের গতি কেমন হবে সেটা নির্ভর করে র‍্যাম ও প্রসেসরের উপর। এ দুটি যত চালু থাকবে ফোন ততটা ধীর হয়ে পড়বে। তাই এদিকে খেয়াল রাখতে হবে।

স্মার্টফোনে আমরা হরেক রকম অ্যাপ ব্যবহার করে থাকি, যেগুলোর মধ্যে কিছু অ্যাপ ব্যাকগ্রাউন্ডে চালু থাকে এবং র‍্যাম ব্যবহার করে। এসব অ্যাপ র‍্যামের অনেকটা ব্যবহার করার কারণে নতুন কোনো অ্যাপ চালু করা হলে তা ধীর হয়ে পড়ে।

এ জন্য ব্যাকগ্রাউন্ডে চালু থাকা অ্যাপ যত বেশি বন্ধ রাখা যাবে ফোন তত বেশি গতিময় থাকবে। ব্যাকগ্রাউন্ড প্রসেস কমিয়ে কিভাবে ফোনের গতি বাড়িয়ে নেওয়া যায় তা এ টিউটোরিয়ালে তুলে ধরা হলো।

ব্যাকগ্রাউন্ড প্রসেস লিমিট কী 

ফোনের ব্যাকগ্রাউন্ডে একসঙ্গে কতগুলো প্রসেস বা অ্যাপ চালু থাকবে সেটির সর্বোচ্চ সীমা নির্ধারণ করে দেয়া যায়। এতে করে ওই নির্দিষ্ট সংখ্যক অ্যাপের বেশি চালু হলে তা স্বয়ংক্রিয়ভাবে নিষ্ক্রিয় হয়ে যায়। ফলে র‍্যাম ফাঁকা থাকে এবং কাজের ক্ষেত্রে গতি বাড়ে।

অধিক র‍্যামের স্মার্টফোনের ক্ষেত্রে অবশ্য এমন পদ্ধতি চালুর প্রয়োজন নাও হতে পারে। তবে কম র‍্যামের ফোনের জন্য এটি বেশ কাজের।

যেভাবে করবেন

এ ফিচার চালুর জন্য অ্যান্ড্রয়েডের ‘ডেভেলপার মোডের’ সেটিংসটি আনলক করে নিতে হবে। এ জন্য ‘অ্যাবাউট ফোন’ সেটিংসে ‘বিল্ড নম্বরে পরপর সাত বার ট্যাপ করতে হবে।

ডেভেলপার মোড চালু হবার পপ-আপ প্রদর্শিত হলে, সেটিংসের মূল পাতা থেকে ডেভেলপার সেটিংসে যেতে হবে।

সেখানে অ্যাপ সেকশনে ব্যাকগ্রাউন্ড প্রসেস লিমিট প্রদর্শিত হবে। সেখানে থেকে ‘No Background Process’ কিংবা ‘At most 1 Process’ নির্বাচন করতে হবে।

এরপর ফোন একবার বন্ধ করে পুনরায় চালু করতে হবে।

সবকিছু ঠিকমত সম্পন্ন হলে ফোনের গতি বাড়বে এবং কম র‍্যামের ফোনের ক্ষেত্রে ধীর হওয়ার যন্ত্রণা থেকে মুক্তি মিলবে।

এখানে বলা প্রয়োজন, পদ্ধতিটি অতিরিক্ত সংখ্যক অ্যাপের কাজ বন্ধ করে দেওয়ার মাধ্যমে গতি বাড়ায়। এ ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় কিছু কাজ যেমন ব্রাউজার দিয়ে কিছু ডাউনলোড দেওয়া কিংবা মিউজিক প্লেয়ারে গান শোনা অবস্থায় অন্য কোনো অ্যাপে নতুন কাজ শুরু করলে ডাউনলোড প্রসেস কিংবা গান বাজানো বন্ধ হয়ে যেতে পারে।

আরএ/আরআর/ আগস্ট ১০/২০১৯/১৩.৫৫

*

*

আরও পড়ুন