তৃণমূলে চতুর্থ শিল্প বিপ্লব নিয়ে কর্মশালা করাবে ছাত্রলীগ

Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : দেশের সবচেয়ে প্রাচীন রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ছাত্র সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ দেশব্যাপী চতুর্থ শিল্প বিপ্লব নিয়ে কর্মশালা আয়োজন করতে যাচ্ছে। 

দেশের একেবারে তৃণমূল পর্যায়ে ডিজিটাল বাংলাদেশ নিয়ে গণ-সচেতনতা তৈরি করতে এবং ভবিষ্যতের প্রযুক্তিনির্ভর বাংলাদেশ সম্পর্কে অবগত করতেই এমন পদক্ষেপ নিচ্ছে সংগঠনটি।  

এজন্য দেশের প্রতিটি ইউনিটে ‘চতুর্থ শিল্পবিপ্লব : ডিজিটাল বাংলাদেশ ও নিরাপত্তা’ শিরোনামে কর্মশালার শুরু করবে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ।

সংগঠনটি জানায়, চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের ঘোষণা দিয়ে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। সরকার এ বিষয়ে খুবই সুক্ষ্ম পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। তারপরও বিষয়টি নিয়ে সাধারণ মানুষ সচেতন নয়। তাদের সচেতন করতে এবং এই চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের জ্ঞান পৌঁছে দিতে কাজ করবে তারা। 

আর সে জন্য ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে ‘তৃণমূলে চতুর্থ শিল্পবিপ্লবের প্রস্তুতি’ বিষয় ছাত্রলীগের কর্মশালার ঘোষণা দিয়েছে সংগঠনটির কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ।

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন বলেন, ইতোমধ্যে কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদ থেকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে সকল ইউনিটে কর্মশালা করার। কর্মশালায় শুধু ছাত্রলীগের কর্মীরাই অংশগ্রহণ করবে। জনগণকে জানানোর কাজটা হবে তাদের এবং সে জন্য তাদের হাতে একটি করে পুস্তিকা দেয়া হবে যাতে সহজ ভাষায় এগুলো নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা থাকবে।

তিনি জানান, কর্মশালা শেষে কর্মীরা নিজ নিজ ইউনিটে গিয়ে প্রতিটি বাড়িতে একটি করে পুস্তিকা দেবার মাধ্যমে ডিজিটাল বাংলাদেশের কার্যক্রম বোঝানো হবে। সেই সঙ্গে দেশের প্রান্তিক পর্যায়ের প্রতিটি মানুষকে উৎসাহিত করবে চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের অংশীদার হতে।

ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী বলেন, আওয়ামী লীগের দক্ষ পরিচালনায় দেশ সামনে এগিয়ে যাচ্ছে। অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির এক অনন্য নজির স্থাপিত হয়েছে। চতুর্থ শিল্পবিপ্লব ও ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের মাধ্যমে হওয়া দেশের এই উন্নয়নের খবর তৃণমূলে পৌঁছে দেবে ছাত্রলীগ।

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির উপ-তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক আশিকুর রহমান রুপক বলেন, চতুর্থ শিল্পবিপ্লব কথাটা পুরো বিশ্ব গত তিন-চার বছর আগে থেকেই জেনেছে। মূলত ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের নির্বাহী চেয়ারম্যান ক্লাউস মার্টিন স্কোয়াব এর একটি বই থেকেই জানা যায় কিভাবে ডিজিটাইজেশনই আমাদের পরবর্তী শিল্প বিপ্লব নিয়ে আসছে।

‘আমার গ্রাম, আমার শহর’ এবং ‘তারুণ্যের শক্তি – বাংলাদেশের সমৃদ্ধি’ স্লোগান দুটিকে সামনে রেখে ছাত্রলীগের কর্মীদের মাধ্যমে তৃণমূল পর্যায়ে ডিজিটাইজেশনের বার্তা এবং প্রস্তুতি সম্পর্কে সচেতনতা তৈরি করা তাদের কাজ বলে জানান তিনি। 

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের তথ্য-প্রযুক্তি বিষয়ক সেল কারিগরি সহায়তা প্রদান করবার মাধ্যমে কর্মশালাগুলো সফলভাবে সম্পন্ন করবে। সকল ইউনিটের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক ও তথ্যপ্রযুক্তি সেলকে কেন্দ্রীয় তথ্যপ্রযুক্তি সেলের সঙ্গে সমন্বয় করে সার্বিক সহযোগিতা প্রদান করতে নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় কমিটি।

ইএইচ/ জুলাই ২৯/ ২০১৯/ ২৩০০ 

আরও পড়ুন – 

তথ্যপ্রযুক্তি খাতে সহযোগিতা অব্যাহত রাখবে নেদারল্যান্ডস

দেশে নতুন শিল্প বিপ্লবের সুযোগ করেছে তথ্যপ্রযুক্তি : প্রধানমন্ত্রী

দেশে সম্ভাবনাময় খাত সেমিকন্ডাক্টর শিল্প

*

*

আরও পড়ুন