অ্যাপল তথ্য ফাঁস ঠেকিয়েছে, চোরও ধরেছে

cook-china-techshohor

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : প্রযুক্তি বিশ্বে গ্যাজেট সম্পর্কে তথ্য ফাঁসের ঘটনা হরহামেশাই ঘটে। এই তথ্য ফাঁস ঠেকাতে গত ছয় বছর ধরেই নিজেদের সর্বোচ্চ চেষ্টা চালাচ্ছে অ্যাপল। তবে চীনাদের বুদ্ধির কাছে মাঝে মধ্যে তারাও হার মানতে বাধ্য হয়।

২০১৩ সালে সংবাদ মাধ্যম দ্য ইনফরমেশনে আইফোন ৫সি এর তথ্য ফাঁসের পর অ্যাপল ‘নিউ প্রোডাক্ট সিকিউরিটি টিম’ নামের একটি টাস্ক ফোর্স গঠন করে। সন্দেহভাজন সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের উপর নজর রাখার কাজ করে টাস্ক ফোর্স। এছাড়াও, প্রতি সপ্তাহে ফ্যাক্টরি পরিদর্শন করে থার্ড পার্টি অডিটর টিম।

এতে করে যেমন তথ্য ফাঁস ঠেকানো গেছে তেমনি চুরির কৌশলও ধরা পড়েছে। সিকিউরিটি টিম জানিয়েছে, ফ্যাক্টরি থেকে ফোন বা ফোনের যন্ত্রাংশ বাইরে পাচার করতে মাঝে মধ্যে চীনা কর্মীরা সব সীমা অতিক্রম করে ফেলেন।

যেমন একবার তারা আবিষ্কার করেন, আইফোনের যন্ত্রাংশ পাচার করতে সুড়ঙ্গ তৈরির চেষ্টা করে ফ্যাক্টরির কর্মীরা। বিষয়টি লুকিয়ে রাখতে সুড়ঙ্গের সামনে একটি বড় মেশিন এনে রেখেছিল তারা।

এছাড়া, টিস্যু পেপারের বক্স, জুতায়, বেল্ট, অর্ন্তবাস ও ঘর মোছা পানির বালতিতে করেও আইফোনের যন্ত্রাংশ বাইরে নেওয়ার চেষ্টা করেছেন কর্মীরা।

তথ্য ফাঁস হলে যন্ত্রাংশ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানগুলো অ্যাপলকে কয়েক মিলিয়ন ডলার ক্ষতিপূরণ দিতে বাধ্য হয়। কিন্তু প্রধান সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান ফক্সকনের ক্ষেত্রে এই নিয়ম প্রযোজ্য নয়। অ্যাপলের সঙ্গে তাদের সম্পর্ক অতি ভালো হওয়ার কারণেই তারা এই ছাড় পায়।

ইউবার গিজমো অবলম্বনে এজেড/ জুলাই ১৮/২০১৯/১৪৩১

*

*

আরও পড়ুন