ভিডিও গেইমেই শুন্য বাবার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট

ছবি : বিবিসি

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ভিডিও গেইম খেলে বাবা-মার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট শুন্য করে দিয়েছে বিশেষভাবে সক্ষম এক তরুণ। 

ছেলে অটিজমে আক্রান্ত। সে অন্য কোন কাজ করতে পারে না। ইদানীং সে কয়েকটি ভিডিও গেইমে আসক্ত হয়ে পড়েছে। যার মধ্যে রয়েছে ফিফা, গেইমার তরুণের সম্পর্কে বলছিলেন বাবা থমাস কার্টার । 

তিনি আরও বলেন, ছেলের গেইম খেলার নেশায় এখন তাদের জমানো সব অর্থ খরচ হয়ে গেছে। ব্যাংকে থাকা সব অর্থ ছেলের গেইম খেলার পিছনেই ব্যয় করেছেন থমাস। 

এক গেইমেই খরচ ৩১৬০ পাউন্ড

মাত্র একটি গেইমেই থমাসের ২২ বছর বয়েসী ছেলে খরচ করেছেন তিন হাজার ১৬০ পাউন্ড। ছেলে অটিজমে আক্রান্ত হওয়া বাইরে তেমন বের হয় না। তেমন কোন কাজ তো করতেই পারে না। 

এমন অবস্থায় ছেলের পড়াশোনার জন্য তাকে একটি আইপ্যাড কিনে দেন থমাস। সেখানেই চলতে থাকে গেইম খেলা। একটা সময় গেইমের জন্য প্লে স্টেশনও  কিনে দেন ছেলেকে। 

সেখানেই নিজের পড়াশোনা ও গেইম খেলায় সময় কাটতে থাকে ওই তরুণের। কিন্তু যত সময় গড়ায় ততই গেইমের প্রতি আকৃষ্ট হতে থাকে। এখন এমন একটা অবস্থায় দাড়িয়েছে যে, ছেলে গেইম ছাড়া আর কিছু বোঝে না। ফলে বাধ্য হয়ে তার পিছনে অর্থ খরচ করতে হয়, বলছিলেন থমাস। 

ওই তরুণ চলতি বছরের ১৮ ফেব্রুয়ারি থেকে ৩০ মের মধ্যে ওই তিন হাজার ১৬০ পাউন্ড খরচ করেছে। 

এমনকি ভুল বসত আইটিউনে বেশ কিছু পার্সেজ করেছে ওই তরুণ। তার বাবা থমাস যখন আইটিউনের কাছে বিষয়টি জানায় এবং বিস্তারিত বলে তখন আইটিউন তাদের স্বান্ত্বনা দেন। কিন্তু তাকে রিফান্ড করেননি বলেও জানান থমাস। 

থমাস তার ছেলেকে এই আসক্তি থেকে সরিয়ে আনতে নানা ভাবে চেষ্টা করেও ব্যর্থ হচ্ছেন। 

এভাবে অনেক তরুণ, কিশোর এবং শিশুরাও গেইমের নেশায় বুঁদ হয়ে গেছে বলে জানাচ্ছে বিবিসি। বেশকিছু এমন চিত্র তাদের প্রতিবেদনে উঠে এসেছে।

যেখানে দেখা যাচ্ছে, কিশোররা লুকিয়ে পরিবারের কারো ক্রেডিট কার্ড দিয়ে গেইম কিনছে, প্লেয়ারসহ আরও আনুষঙ্গিক জিনিসপত্র কিনছে। যা অনেকটা মহামারি আকার ধারণ করছে।

ইএইচ/ জুলাই ১৫/ ২০১৯/ ১৯৪০  

আরও পড়ুন – 

ফোর্টনাইট খেলে ২৫ কোটি গেইমার

বছর মাতানো সাত গেইম

*

*

আরও পড়ুন