চাপের মধ্যেও ভালো ফল গ্রামীণফোনের

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : নানামুখী চাপে থাকার পরও আয়ের দিক থেকে যে কোনো সময়ের মধ্যে সেরা ফল করেছে গ্রামীণফোন।

গ্রাহক ও আয়ের বিবেচনায় দেশের বৃহত্তম মোবাইল ফোন অপারেটরটি এপ্রিল থেকে জুন প্রান্তিকে তিন হাজার ৬০৩ কোটি ৮২ লাখ টাকা আয় করেছে। এর মধ্যে নিট মুনাফার পরিমাণ ৯৫৫ কোটি ২৮ লাখ টাকা।

সোমবার চলতি বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের অনিরীক্ষিত প্রতিবেদন প্রকাশ করে অপারেটরটি।

দ্বিতীয় প্রান্তিকের প্রায় পুরোটা সময়জুড়ে অপারেটরটিকে সিগনিফিকেন্ট মার্কেট পাওয়ার (এসএমপি) ঘোষণা, নম্বর ঠিক করে অপারেটর বদলের সেবা এমএনপি চালু, বকেয়া আদায়ে বিটিআরসির চাপ মোকাবেলা করতে হয়েছে। এর মধ্যেও আর্থিক ফলাফলে বেশ ভালো করেছে তারা।

এ সময়ে এক প্রান্তিকে মোট আয়ের দিক দিয়ে রেকর্ড হলেও লাভের বিবেচনায় গত বছরের একই সময়ের তুলনায় খানিকটা পিছিয়ে গেছে অপারেটরটি। গত বছর এপ্রিল-জুন প্রান্তিকে নিট মুনাফা ছিল এক হাজার ৩৯ কোটি ৭৫ লাখ টাকা। তখন মোট আয় হয়েছিল তিন হাজার ২৫৭ কোটি ৫০ লাখ টাকা।

গ্রামীণফোনের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত অনিরীক্ষিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, সর্বশেষ প্রান্তিকে অপারেটরটিতে আরও ১৩ লাখ নতুন সংযোগ যোগ হয়েছে। এতে জুনের শেষে তাদের কার্যকর সংযোগ দাঁড়িয়েছে সাত কোটি ৫৩ লাখ।

এর তিন কোটি ৯৮ লাখের সঙ্গে ইন্টারনেট সংযোগ আছে বলে জানিয়েছে অপারেটরটি। ইন্টারনেট সংযোগের এমন ঊর্ধ্বগতির কারণে এখান থেকে তাদের আয়ও আগের যে কোনো সময়ের তুলনায় বেড়েছে। এই প্রান্তিকে তারা ডেটা থেকে ৭২০ কোটি টাকা আয় করেছে। গত বছর একই সময়ে এ খাতের আয় ছিল ৬১০ কোটি টাকা।

তাছাড়া সামগ্রিকভাবে ডেটার ব্যবহারও অনেক বেড়েছে। সর্বশেষ প্রান্তিকে ইন্টারনেট সংযোগ প্রতি এক হাজার ৫৩৮ এমবি করে ডেটা ব্যবহার হয়েছে।

গ্রামীণফোন কর্তৃপক্ষ তাদের এই ফলাফলকে শক্তিশালী ব্যবসায়িক সাফল্য বলে মনে করছে।

অপারেটরটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মাইকেল ফোলিও এ বিষয়ে বলেন, অনেক চ্যালেঞ্জের মধ্যেও ২০১৯ সালের প্রথমার্ধে অনেক ভালো ফল এসেছে।

নেটওয়ার্কের ওপর জোর দেওয়া এবং গুনগত সেবার দিকে মনযোগ দেওয়ার কারণেই এ সাফল্য ধরা দিয়েছে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

জুন মাসের শেষে অপারেটরটির ফোরজি নেটওয়ার্কের কাভারেজ দেশের ৬২ শতাংশ এলাকায় পৌঁছেছে।

জেডএ/আরআর/ ১৫ জুলাই/২০১৯/১৬১৪

আরও পড়ুন –

জিপির কোটির মাইলফলকে ৩০ লাখই ভূতুড়ে ফোরজি গ্রাহক

২ বছরে সর্বনিম্ন জিপির শেয়ারদর

*

*

আরও পড়ুন