প্রোগ্রামার হয়ে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করতে চায় তারা

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : দক্ষ প্রোগ্রামার হয়ে বাংলাদেশকে প্রতিনিধিত্ব করার অঙ্গীকার করলেন শিক্ষার্থীরা। 

রাজধানীর গ্রিন রোডের ইউনিভার্সিটি অব এশিয়া প্যাসিফিকে কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগ এবং বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্কের (বিডিওএসএন) যৌথ উদ্যোগে অনুষ্ঠিত তিন দিনব্যাপী ‘গ্রেস হপার গালর্স প্রোগ্রামিং ক্যাম্প’ শেষে এমন কথা বলেন তার।

গত ২৮ ও ২৯ জুনের পর রোববার অনুষ্ঠিত হয় ওই তিন দিনের ক্যাম্প। যেখানে বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগের প্রায় ৩০ নারী শিক্ষার্থী অংশ নেয়। 

গত ২৮ জুন ক্যাম্প শুরু হয়, পরের দুই দিন দিনব্যাপী শিক্ষার্থীরা প্রোগ্রামিংয়ের প্রাথমিক বিষয়গুলো সম্পর্কে ধারণা নেয়। ৬ জুলাই সকাল থেকে তারা প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের জন্য প্রয়োজনীয় বিষয়গুলো শেখে এবং ওইদিন দুপুর ২টা থেকে একটি প্রোগ্রামিং প্রতিয়োগিতায় অংশ নেয়।

রোববার বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে এক সমাপনী অনুষ্ঠানের মাধ্যমে অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থী এবং প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের হাতে সনদ তুলে দেন উক্ত বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ড. বিলকিস জামাল ফেরদৌসি এবং বিডিওএসএনের সাধারণ সম্পাদক মুনির হাসান।

অধ্যাপক ড. বিলকিস জামাল ফেরদৌসি বলেন, তথ্য প্রযুক্তিতে টেকসই উন্নয়নের জন্য ছেলেদের পাশাপাশি মেয়েদেরও প্রোগ্রামিংয়ে দক্ষতা প্রয়োজন।

মুনির হাসান বলেন, বাস্তব জীবনের যেকোন ক্ষেত্রে কোডিং শেখাটা জরুরি। কেননা প্রোগ্রামিং শেখায়, কি করে একটি বড় সমস্যাকে ছোট ছোট করে ভেঙ্গে সমাধান করা যায়।

এর আগেও বিভিন্ন প্রোগ্রামিং প্রতিয়োগিতায় অংশ নিয়েছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ফারজানা ইসলাম শশী।

ওয়েব ডেভেলপিংয়ের কাজ করতে গিয়ে প্রোগ্রামিংয়ের মজাটাই ভুলতে বসেছিলেন। তিনি বলেন, ক্যাম্পে এসে প্রোগ্রামিংয়ের জড়তাটা অনেকটাই কেটে গেছে। ভবিষ্যতে প্রোগ্রামিং নিয়ে গুগলের মত বড় প্রতিষ্ঠানে বাংলাদেশকে উপস্থাপনের স্বপ্ন দেখে সে।

তথ্যপ্রযুক্তিতে নারীদের উদ্বুদ্ধ করতে এবং তথ্যপ্রযুক্তির কর্মক্ষেত্রে নারীর অংশগ্রহণ বৃদ্ধির লক্ষ্যে ‘বিডিওএসএন এনাবলিং সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট গোলস ফর বাংলাদেশ- এসডি৪জিবিডি’ শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় এই ক্যাম্পের আয়োজন করে। প্রকল্পটির সার্বিক তদারকি করছে মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন। বিডিওএসএন তিন বছর মেয়াদী এই প্রকল্পের আওতায় দেশের বিভিন্ন স্থানে পর্যায়ক্রমে অনুরূপ ক্যাম্পের আয়োজন করবে। 

ইএইচ/ জুলাই ০৭/ ২০১৯/ ১৯২২

*

*

আরও পড়ুন