ব্যান্ডউইথ ব্লক : আদালতে যাবে জিপি

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ব্যান্ডউইথ ব্লক করার বিটিআরসির সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আদালতে যাবে গ্রামীণফোন।

বিটিআরসির ১২ হাজার ৫৭৯ কোটি ৯৫ লাখ টাকা পাওনাকে অমিমাংসিত বিষয় উল্লেখ করে ইন্টারনেট ব্যান্ডউইথ কমিয়ে দেয়াকে বেআইনি ও অযৌক্তিক বলছে অপারেটরটি।

রোববার রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁওয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে অপারেটরটির শীর্ষ পর্যায়ের কর্মকর্তারা বলেন, অমিমাংসিত অডিট পাওনা আদায়ের জন্য চাপ তৈরি করতে নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইআইজি অপারেটরদের যে নির্দেশনা দিয়েছে তা সম্পূর্ণ বেআইনি এবং এমন অযৌক্তিক সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে তারা আদালতের শরনাপন্ন হবেন।

গ্রামীণফোনের সিইও মাইকেল ফোলি বলেন, ‘এ নির্দেশনা বাংলাদেশের মানুষ এবং ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলোর ওপর বাড়তি চাপ তৈরি করবে।

বিটিআরসিকে এ নির্দেশনা তুলে নেওয়ার অনুরোধ করে তিনি সালিস আইন-২০০১ এর অধীনে অমিমাংসিত অডিট দাবির নিষ্পত্তি চান।

তিনি জানান, এর আগে অমিমাংসিত অডিট দাবির গঠনমূলক নিষ্পত্তির জন্য  গ্রামীণফোনের পক্ষ থেকে বিটিআরসিকে একটি সালিশ নোটিশ পাঠানো হয়েছে। নোটিশের বিষয়ে এখন পর্যন্ত  নীরব ভুমিকা পালন করছে বিটিআরসি।

সংবাদ সম্মেলনে আরেটরটির ডিরেক্টর ও হেড অব রেগুলেটরি অ্যাফেয়ার্স হোসেন সাদাত বলেন, বিটিআরসির নির্দেশনাটি এমনভাবে করা হয়েছে যার ফলে নেটওয়ার্কের অধীনে থাকা গ্রাহকদের উপর নেতিবাচক প্রভাব পড়বে। এর ফলে নেতিবাচক প্রভাব পড়বে স্থানীয় ব্যবসায়ী সম্প্রদায় এবং সংশ্লিষ্ট আইআইজি অপারেটরদের উপর। কারণ নির্দেশনার ফলে রাজস্ব আয় কমার পাশাপাশি ব্যবসায়িক সুযোগ হারাবে প্রতিষ্ঠানগুলো। যদিও পুরো বিষয়টির ওপর তাদের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই।

বৃহস্পতিবার গ্রামীণফোন ও রবির আংশিক ব্যান্ডউইথ ব্লক করে দেয় বিটিআরসি।

এরপর দুটি অপারেটরই গ্রাহকদের এসএমএস করে জানায়, বিটিআরসির এই ব্যান্ডউইথ ব্লক করার কারণে ইন্টারনেট সেবায় সাময়িক সমস্যা হতে পারে।

এডি/জুলাই০৭/২০১৯/১৬২০

*

*

আরও পড়ুন