অ্যামাজনের ২৫ বছরের খুঁটিনাটি

Amazon-techshohor
Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : অ্যামাজন প্রায় ২৫ বছর আগে যাত্রা করেছিলো।

গত ৫ জুলাই ছিলো তাদের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী। ১৯৯৪ সালে এ কোম্পানির নাম অ্যামাজন হিসেবে রেজিস্টার করান জেফ বেজস। তার ব্যবসায়িক কৌশল ও প্রযুক্তির মিশেলে অ্যামাজন বিশ্বের অন্যতম বড় কোম্পানিতে পরিণত হয়েছে।

অ্যামাজনের গত ২৫ বছরের যাত্রার কিছু গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা ও তথ্য তুলে ধরা হলো পাঠকদের জন্য।

অ্যামাজনের নাম

বেজস তার কোম্পানির নাম রাখতে চেয়েছিলেন ক্যাডাবরা। তবে এক আইনজীবী তাকে এই নাম না রাখার পরামর্শ দেন। কারণে ক্যাডাবরার সঙ্গে ক্যাডাভার শব্দটির মিল রয়েছে। ক্যাডাভার শব্দ অর্থ হলো মৃতদেহ। এরপরে রিলান্টনেস নামটি রাখতে চেয়েছিলেন বেজস। সেটা বাতিল হওয়ার পরই অ্যামাজন নামটি প্রতিষ্ঠা পায়।

লোগো এ থেকে জেড

অ্যামাজনের লোগোতে একটা স্মাইলি আছে যা এ থেকে জেড পর্যন্ত ছড়ানো। লোগোটির অর্থ বের করলে দাঁড়ায়, আমরা যে কোনো কিছু যেকোনো জায়গায় ডেলিভার করতে চাই।তবে অ্যামাজন জানায়, ক্রেতাদের প্রতিটি প্রয়োজন মেটানোর ক্ষমতা আছে তাদের। ‘এ থেকে জেড’ পর্যন্ত সব চাহিদাই মেটাবে তারা।

ডেটিং অ্যাপে প্রকৌশলী

২০১৭ সালে প্রকৌশলী নিয়োগ দিতে ডেটিং অ্যাপ টিন্ডারে বিজ্ঞাপন দিয়েছিলো তারা। সেখানে সম্ভাব্য প্রার্থীদের বলা হয়েছিলো অ্যামাজনের ক্লাউড সেবায় কাজ করতে চাইলে ডানে সোয়াইপ করুন।

অ্যাপল দেয় ৩০ মিলিয়ন

অ্যামাজনের ওয়েব সার্ভিস ব্যবহার করায় প্রতি মাসে অ্যামাজনকে ৩০ মিলিয়ন ডলার (৩ কোটি) দেয় অ্যাপল।

পাওয়ার পয়েন্ট নিষিদ্ধ

২০০৪ সাল থেকেই পাওয়ার পয়েন্টে প্রেজেন্টেশন দেওয়া নিষিদ্ধ করেছে অ্যামাজন। এর বদলে কর্মীদেরকে হাতে লিখে ৪ থেকে ৬ পৃষ্ঠার একটি ডকুমেন্ট জমা দিতে হয়।

চাকরি ছাড়তে ৫ হাজার ডলার

অ্যামাজনে ‘পে টু কুইট’ নামের একটি প্রোগ্রাম আছে। এর আওতায় কর্মীদেরকে ৫ হাজার ডলারের বিনিময়ে চাকরি ছাড়ার সুযোগ দেওয়া হয়। কোনো কর্মী এই অফার একবার নিলে পরবর্তীতে আর কখনও অ্যামাজনে ঢুকতে পারে না।

কর্মী ও রোবট কাজ করে

অ্যামাজনে কাজ করেন তিন লাখ লোক। কর্মীর পাশাপাশি রোবটও কাজে লাগানো হয় প্রতিষ্ঠানটিতে। অ্যামাজনের ওয়্যারহাউজে (যেখান থেকে পণ্য ডেলিভারি করা হয়) ৪৫ হাজার রোবট কাজ করে।

বই থেকে শুরু

সর্বপ্রথম বই বিক্রি করে যাত্রা করে অ্যামাজন। প্রথম মাসে বিশ্বের ৪৫টি দেশ থেকে বইয়ের অর্ডার আসে। বই থেকে গেইম, খেলনা ও অন্যান্য জিনিসের পর ধীরে ধীরে সব কিছুর বিক্রি শুরু হয় অ্যামাজনে।

প্রথম লাভ

প্রতিষ্ঠানটি যাত্রা শুরু করে ১৯৯৫ সালে। তবে প্রথম লাভের মুখ দেখতে বেজসকে অপেক্ষা করতে হয় ২০০১ সালের শেষ প্রান্তিক পর্যন্ত। বার্ষিক লাভের জন্য ২০০৪ সাল পর্যন্ত অপেক্ষ করতে হয় তাকে।

অ্যামাজন প্রাইম

শুধু যুক্তরাষ্ট্রেই অ্যামাজনের ভিডিও স্ট্রিমিং সাইটের গ্রাহক রয়েছে ১০০ মিলিয়ন।

প্রতিটি মিনিট গুরুত্বপূর্ণ

২০১৩ সালে অ্যামাজনের ওয়েবসাইট ক্র্যাশ করে। ৪০ মিনিট বেচা বিক্রি বন্ধ থাকায় তাদের ক্ষতি হয় ৪ দশমিক ৮ মিলিয়ন ডলার।

গ্যাজেটস নাউ অবলম্বনে এজেড জুলাই/ ০৭/২০১৯/১৫৪৫

*

*

আরও পড়ুন