STE 2019 (summer) in news page

মিউজিক অ্যাপে বেঁচে থাকলো আইটিউন

Itune-techshohor
Laptop fair 2019 (in page)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : আনুষ্ঠানিকভাবে আইটিউনের যুগ শেষ বলে ঘোষণা দিয়েছেন অ্যাপলের এক্সিকিউটিভ ক্রাইগ ফেদেরিগি।

তবে আইটিউনের অস্তিত্ব পুরোপুরি বিলীন করে দিচ্ছে না অ্যাপল। মিউজিক অ্যাপ থেকেই আইটিউনের মাধ্যমে গান ডাউনলোড করতে পারবেন ব্যবহারাকীরা।

বার্ষিক ডেভেলপার কনফারেন্সে অ্যাপল জানায়, আইটিউনকে ভেঙে আলাদা তিনটি অ্যাপ আনা হবে ম্যাকওএসের জন্যে। এগুলো হলো মিউজিক, টিভি ও পডকাস্ট অ্যাপ। নতুন ম্যাকওএস ১০.১৫. সংস্করণে অ্যাপগুলো পাওয়া যাবে।

এক বছর আগে থেকেই আইটিউনের বিকল্প হিসেবে আইফোন ও আইপ্যাডে মিউজিক, টিভি ও পডকাস্ট নামে আলাদা তিনটি অ্যাপ আছে। অ্যাপল মিউজিকে নিজের পছন্দমতো গান শোনা, পডকাস্ট অ্যাপ দিয়ে প্রয়োজনীয় ভিডিও সার্চ করা এবং টিভি অ্যাপের মাধ্যমে টিভি চ্যানেলের অনুষ্ঠানগুলো দেখার সুবিধা রয়েছে।

তিনটি অ্যাপই আইটিউনের বিকল্প হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছিল। তাই আগেই ধারণা করা হয়, আইটিউন আনুষ্ঠানিকভাবে বন্ধ করে দেওয়া হবে। কারণ মাসিক সাবস্ক্রিপশন ফি দিয়ে অ্যাপল মিউজিকে সাবস্ক্রাইব করলেই বরং অ্যাপল বেশি লাভবান হয়। ব্যবহারকারীরা কবে নতুন গান কিনবে আইটিউন থেকে সে আশায় বসে থাকতে চায়নি অ্যাপল।

সাবস্ক্রিপশনভিত্তিক স্ট্রিমিং সার্ভিস আইটিউন ২০০১ সালে ম্যাকওয়ার্ল্ড এক্সপোতে উন্মোচন করা হয়। পাইরেসি ঠেকানোর সবচেয়ে সহজ সমাধান দিয়েছিলো আইটিউন। এখানে একাধারে সিনেমা, টিভি ও গান সরাসরি দেখা যায় বা ডাউনলোড করা যেত।

দ্য ভার্জ অবলম্বনে এজেড/ জুন ০৪/ ২০১৯/ ১২৪৫

*

*

আরও পড়ুন