অ্যাপলের ওয়েবসাইট হ্যাক, দণ্ড দেয়নি আদালত

apple-techshohor

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : অ্যাপলে চাকরি পাওয়ার স্বপ্ন অনেকেরই থাকে।

সেই স্বপ্ন পূরণে নিজের সব প্রযুক্তিগত জ্ঞান ব্যবহার করে শর্টকাটে অ্যাপলে চাকরি পেতে চেয়েছিলো  ১৭ বছরের এক কিশোর। কিন্তু আইন ভঙ্গের দায়ে আদালতে হাজির হতে হয় তাকে।

অস্ট্রেলিয়ার অ্যাডিলেড শহরের স্কুলপড়ুয়া সেই কিশোর শুনেছিলো অ্যাপলের ওয়েবসাইট হ্যাক করায় ইউরোপে একজনকে চাকরি দিয়েছে অ্যাপল। ব্যস, তারও মনে হলো ওয়েবসাইট হ্যাক করলে অ্যাপলের দৃষ্টি আকর্ষণ করা যাবে। তার হ্যাকিং দক্ষতা দেখেই মুগ্ধ হয়ে যাবে অ্যাপল। এই চিন্তা থেকে ২০১৫ সালে ও ২০১৭ সালে দুই দফায় অ্যাপলের ওয়েবসাইট হ্যাক করে বিপুল পরিমাণ নথিপত্র ডাউনলোড করে সে।

এছাড়াও, ডিজিটাল জালিয়াতির মাধ্যমে অ্যাপল সার্ভারে নিজেকে অ্যাপল কর্মী হিসেবে উপস্থাপন করে সেই কিশোর। এসব ঘটনায় তার বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করে এফবিআই ও অস্ট্রেলিয়ার পুলিশ।

ধরা পরার পর সে জানায়, হ্যাকিংয়ের সময় মেলবর্নের আরেক কিশোর তাকে সহায়তা করেছিলো।

মামলাটি কোর্টে উঠলে তার আইনজীবি বলেন, হ্যাকিংয়ের কাজ করার সময় সে ১৩ বছরের কিশোর ছিলো। এই ঘটনার পরিণতি সম্পর্কে তার কোনো ধারণা ছিলো না। চাকরি পাওয়ার আশায় সে কাজটি করেছিলো। এ ঘটনায় অ্যাপলের আর্থিক কোনো ক্ষতি হয়নি। গোপন কোনো প্রযুক্তিও ফাঁস হয়নি।

সব শুনে আদালতের জজ সেই কিশোরকে অপরাধী সাব্যস্ত না করে একটি বন্ডে সই করায়। সেখানে বলা হয়, আগামী নয় মাস সে ভালো আচরণ না করলে ৫০০ ডলার দণ্ড দিতে হবে।

এনগ্যাজেট অবলম্বনে এজেড/ মে ১৯/ ২০১৯/ ১০৪৫

আরও পড়ুন –

হ্যাকারদের সর্বোচ্চ ২ লাখ ডলার দেবে অ্যাপল

নিরাপত্তা ঝুঁকিতে ৭% অ্যাপল ডিভাইস

*

*

আরও পড়ুন