ইউরোপেও কোণঠাসা হুয়াওয়ে

ARM-Chip-techshohor

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : যুক্তরাজ্যভিত্তিক প্রসেসর নির্মাতা কোম্পানি এআরএমও হুয়াওয়ের সঙ্গে ব্যবসা স্থগিত রেখেছে। এ বিষয়ে কোম্পানিটির সব কর্মীকে নোটিশ দিয়েছে এআরএম।

নোটিশে হুয়াওয়ের সঙ্গে সব চলমান চুক্তি, সাপোর্ট এলিমেন্ট ও পরবর্তী চুক্তিগুলোর কাজ বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

কোম্পানিটির অভ্যন্তরীণ কাগজপত্র ঘেঁটে এ ব্যাপারে নিশ্চিত হয়েছে সংবাদ মাধ্যম বিবিসি।

কোম্পানিটি মোবাইল প্রসেসরের ডিজাইন তৈরি করে থাকে। তাদের নীতিমালায় লেখা, প্রসেসর ডিজাইনে যুক্তরাষ্ট্রের তৈরি প্রযুক্তির প্রয়োজন হয়। সেই সূত্রে, ট্রাম্পের নিষেধাজ্ঞার প্রভাব তাদের ওপরেও পড়বে।

এআরএমের সঙ্গে চুক্তি বাতিল হলে হুয়াওয়ে ভালো সমস্যায় পড়বে বলে মন্তব্য করেছেন এক প্রযুক্তিবিদ। তিনি জানান, চিপ তৈরির জন্য এআরএম এর প্রযুক্তির ওপরে নির্ভরশীল হুয়াওয়ে। এই প্রযুক্তি ব্যবহার করতে তারা টাকা দিয়ে এআরএমের লাইসেন্স ব্যবহার করে থাকে। এআরএমের তৈরি প্রযুক্তি ফাইভজির বেজ স্টেশন, কম্পিউটার সার্ভার ও স্মার্টফোনে ব্যবহার করে থাকে হুয়াওয়ে।

এ বিষয়ে হুয়াওয়ে এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ব্যবসায়িক অংশীদারদের সঙ্গে সুসম্পর্ককে আমরা মূল্য দেই। তারা যে রাজনৈতিকভাবে প্রভাবিত সিদ্ধান্তের শিকার হয়ে চাপের মধ্যে আছে তা আমরা বুঝি।

এই দুঃখজনক পরিস্থিতির সমাধান করা যাবে বলে আমরা আশাবাদী। বিশ্বমানের প্রযুক্তি  ও পণ্য তৈরি করে ক্রেতাদের কাছে তা পৌঁছানোই এখন আমাদের প্রধান কাজ।

এআরএম কোম্পানিটি প্রতিষ্ঠা করা হয় ১৯৯০ সালে। ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বরে জাপানিজ টেক জায়ান্ট সফটব্যাংক এআরএমকে অধিগ্রহণ করে। কোম্পানিটির মূল অফিস যুক্তরাজ্যের কেমব্রিজে থাকলেও স্যান জোন্স ও ক্যালিফোর্নিয়াতে তাদের আরও দুটি হেডকোয়ার্টার আছে।

এআরএম নিজে কোন প্রসেসর তৈরি করে না বরং তারা অন্যান্য কোম্পানিকে সেমিকন্ডাক্টর প্রযুক্তি ব্যবহারের জন্য লেইসেন্স প্রদান করে।

এতে করে এরআরএমের ডিজাইন করা প্রসেসরের নকশা বা ইনস্ট্রাকশন সেটের লাইসেন্স নিয়ে হার্ডওয়্যার নির্মাতা কোম্পানিগুলো নিজস্ব ডিজাইনে কাস্টমাইজড প্রসেসর বানাতে পারে।

বিবিসি অবলম্বনে এজেড/ মে ২৩/২০১৯/১২৪০

*

*

আরও পড়ুন