ভাগ্যবান ঢাকার ছয় এলাকার মোবাইল গ্রাহকরা

Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ফেল থেকে গোল্ডেন জিপিএ ! বলছিলাম অপারেটরগুলোর মানসম্মত সেবার পরীক্ষার ফলাফলের কথা।

বিটিআরসির এই ‘কোয়ালিটি অব সার্ভিস ড্রাইভ টেস্ট’ এর গত দুটি রেজাল্ট কার্ড লুকানোর সুযোগ থাকলে তা নিয়শ্চই হাতছাড়া করতো না মোবাইল ফোন অপারেটরগুলো।

এবার সেই পরীক্ষার ফলে চমক দিয়েছে অপারেটরগুলো, বিশেষ করে শীর্ষ পর্যায়ে থাকা দুই অপারেটর গ্রামীণফোন ও ররি। বাংলালিংকও যা অবস্থা তাতে আগের চেয়ে বেশ ভাল।

মঙ্গলবার বিটিআরসি এই ফলাফল প্রকাশ করে।

যা করা হয়েছে অপারেটরগুলোর  ঢাকার মতিঝিল, কমলাপুর, খিলগাঁও, মোহাম্মদপুর, আদাবর এবং উত্তরা এলাকার মোবাইল নেটওয়ার্কে।

এই এলাকাগুলোতে গ্রামীণফোনের ফোরজির গতি ১০ দশমিক ০৭ এমবিপিএস। অবশ্য ফোরজি গতিতে সবচেয়ে এগিয়ে আছে রবি। তাদের গতি ১০ দশমিক ৩২ এমবিপিএস। এখানে বাংলালিংকের ৬  দশমিক ৪৯ এমবিপিএস।

কোয়ালিটি অব সার্ভিস (কিউওএস) নীতিমালা অনুযায়ী,  ফোরজি প্রযুক্তির ইন্টারনেটে ডাউনলোডের সর্বনিন্ম গতি  ৭ এমবিপিএস হতে হবে।

যেখানে আগের দুটি পরীক্ষায় ঢাকা মহানগরীর বেশ কিছু এলাকা ও চার বিভাগের ১৮ জেলায় অপারেটরগুলো এই ৭ এমবিপিএসের বেঞ্চমার্ক স্পর্শ করতে পারেনি।

বেশ গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু কলড্রপের ক্ষেত্রে কী অবস্থা দেখা যাক। এই ছয় এলাকায় এবারে তিন অপারেটরই কলড্রপের সীমার অনেক নীচে রয়েছে। গ্রামীণফোনের দশমিক ৪৫, রবির দশমিক ৩০ এবং বাংলালিংকের দশমিক ৪৬ শতাংশ করে কলড্রপ।

যেখানে কিউওএস অনুযায়ী এটি ২ শতাংশ পর্যন্ত হওয়ার সুযোগ আছে।

আগের পরীক্ষার ফলাফলে জিপির কলড্রপের হার ছিল ৩ দশমিক ৩৮ শতাংশ, রবির ১ দশমিক ৩৫, বাংলালিংকের ০ দশমিক ৫৮।

এবার এসব এলাকায় কল সেটআপ সফল হওয়ার হারেও অপারেটরগুলোর বেঞ্চমার্ক ঠিক রেখেছে। তিনটি অপারেটরই ৯৭ শতাংশ সীমার উপরে এই সেটআপ রেট রেখেছে।

এছাড়া তিনটি অপারেটরই প্রতিটিই কল সেটআপের জন্যে বিটিআরসি নির্ধারিত যে সাত সেকেন্ডের সময় বেঁধে দেওয়া আছে তার সীমার মধ্যে রয়েছে।

এমওএস স্কোরে তিনটি অপারেটরই বেঞ্চমার্কের উপরে রয়েছে। কিওএস নীতিতে এর সীমা ৩ দশমিক ৫।

এদিকে সরকারি অপারেটর টেলিটক এমওএস স্কোর, কল সেটআপ সাকসেস রেট ছাড়া বাকি কেপিআইগুলোতে বেঞ্চমার্ক ঠিক রাখতে পারেনি।

ফলাফলে তাদের কলড্রপ রেট ২ দশমিক ১৭ শতাংশ, ফোরজির গতি ৪ দশমিক ৮৫ এমবিপিএস এবং কল সেটআপ সময় ৮ দশমিক সেকেন্ড।

সেবার মানের পরীক্ষার এই ফলাফল নিয়ে রবির হেড অব করপোরেট অ্যান্ড রেগুলেটরি অ্যাফেয়ার্স সাহেদ আলম বলেন, টেলিযোগাযোগ সেবার মান নিয়ে ঢাকা শহরের বিভিন্ন স্থানে বিটিআরসির পরিচালিত জরিপের প্রায় প্রতিটি সূচকেই রবি এগিয়ে আছে। এতে প্রমাণিত হয় যে সেবার মানের দিক দিয়ে রবি সেরা। বিশেষত দেশের সবচেয়ে বড় ফোরজি নেটওয়ার্ক তৈরিতে যে বিপুল বিনিয়োগ তারা করেছেন তার ফলেই ফোরজিতে গতি সর্বোচ্চ মিলেছে।

গ্রামীণফোনের প্রধান নির্বাহী মাইকেল ফোলি বলেন, গ্রাহকদের মানস্মত সেবা দিতে তারা ধারাবাহিকভাবে নেটওয়ার্ক উন্নয়নে বিনিয়োগ করছেন। প্রতিদিনই ক্রমবর্ধমান গ্রাহকদের মানসম্পন্ন গ্রাহকসেবা প্রদান এবং নেটওয়ার্ক সেবার ধারাবাহিক মানোন্নয়নে প্রয়োজন সর্বাধুনিক প্রযুক্তি নিয়ে আসা। ধারাবাহিক সেবার মানোন্নয়নকে নিত্যদিনের চ্যালেঞ্জ হিসাবে নিয়েছেন তারা।

কোয়ালিটি অব সার্ভিস (কিউওএস) নীতিমালা অনুযায়ী অপারেটরগুলোর বিভিন্ন সেবার মান মূল্যায়ন করে র‌্যাঙ্কিং করার কথা। র‍্যাঙ্কিংয়ের জন্য এই ড্রাইভ টেস্ট অন্যতম।

নীতিমালায় অপারেটরগুলোর সেবার মানের ক্ষেত্রে বেঞ্চমার্কও ঠিক করে দেয়া হয়েছে। সে অনুয়ায়ী ড্রাইভ টেস্টের ফলাফল তুলনা করা হয়।

ঘোষিত মানদণ্ড অনুসারে সেবা দেওয়া না হলে সংশ্লিষ্ট অপারেটরকে জরিমানা করতে পারবে বিটিআরসি বলে নীতিমালায় বলা হয়েছে।

এডি/মে২১/২০১৯/১৯৩০

*

*

আরও পড়ুন